আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌বেকার সমস্যায় জুজছে গোটা দেশ। আর তার জলজ্যান্ত ছবি ধরা পড়ল খাস গুজরাটেই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যেখানে তিনবার মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বেকার সমস্যার ক্ষেত্রে গুজরাটের পরিস্থিতি যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশের চেয়েও খারাপ। তারই একটি ছোট্ট উদাহরণ দেওয়া যাক। কিছুদিন আগে গুজরাট হাইকোর্টে ক্লার্ক ও পিওন নিয়োগের একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়েছিল। জানানো হয়েছিল, ক্লার্ক ও পিওন পদের জন্য মোট ১,‌১৪৯টি পদ খালি রয়েছে। আর তাই দেখেই দেড় লক্ষেরও বেশি মানুষ ঝাঁপিয়ে পড়ে চাকরির জন্য। ১,৫৯,২৭৪টি আবেদন জমা পড়ে মাত্র ১,১৪৯টি পদের জন্য। কিন্তু এখানেই শেষ নয়। শুনলে চমকে যাবেন, পিওন ও ক্লার্ক পদের আবেদন করেছেন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়র সহ হাজার হাজার স্নাতকোত্তর ছাত্রছাত্রী। তাঁদের মধ্যে থেকে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন সাতজন ডাক্তার, ৪৫০ জন ইঞ্জিনিয়র ও ৫৪৪৬ জন স্নাতকোত্তর ছাত্রছাত্রী। শুধুমাত্র একটি সরকারি চাকরির জন্য। ১৯ জন চিকিৎসকের মধ্যে সাতজন চিকিৎসক পিওনের চাকরি গ্রহণ করেছেন। কারণ একটাই। সরকারি চাকরি ও মাসিক বেতন ৩০ হাজার। ৫৪৪৬ জন স্নাতকোত্তীর্ণদের মধ্যে অধিকাংশই আইন, বিজ্ঞান ও বাণিজ্যের ছাত্রছাত্রী। তাঁদের পিওন পদের জন্য আবেদন করেছিলেন। 
এর আগে গ্রামস্তরে সরকারিক আধিকারিক ও ক্লার্ক নিয়োগের একটি বিজ্ঞাপন দেখে আবেদন করেছিলেন প্রায় এক লক্ষ মানুষ। গ্রামস্তরে সরকারিক আধিকারিক ও ক্লার্কের জন্য খালি ছিল মাত্র ২,‌৭৫৩টি পদ।  

জনপ্রিয়

Back To Top