আজকাল ওয়েবডেস্ক: সামনেই ইদ। মুসলমান সম্প্রদায়ের একটি বড় উৎসব। খুশির ইদ। রমজান মাসের শেষে ইদ-উল-ফিতর পালিত হয়। ইদ-উল-ফিতরের অর্থ উপবাস সমাপ্তির উৎসব। শাওয়াল মাসের প্রথম দিন পালিত হয় ইসলাম সম্প্রদায়ের এই বিরাট উৎসব। এই দিন বিশেষ নমাজ করে দিন শুরু করেন মুসলিম সম্প্রদায়ের ব্যক্তিরা। 

গত ১৩ এপ্রিল শুরু হয়েছিল রমজান মাস। যার ফলে মনে করা হচ্ছে মে মাসের ১৩ অথবা ১৪ তারিখ ইদ পালিত হবে। সৌদি আরবে যেদিন ইদ পালিত হয় তারপরের দিনই ভারতে ইদ পালিত হয়। সেই অনুযায়ী আগামী ১৩ মে ভারতে ইদ পালনের কথা। যদিও অঞ্চলভিত্তিক চাঁদের যেদিন‌ দেখা মেলে সেদিনই সেখানে ইদের দিন নির্ধারিত হয়। সে ক্ষেত্রে ভারতে ১২ মে চাঁদের দেখা মিললে ১৩ মে ইদ পালন‌ করা হবে। নচেৎ ১৩ মে চাঁদের দেখা মিললে ১৪ মে ইদ পালিত হবে।

 

এই ইদ আল্লাহকে ধন্যবাদ জানানোর দিন। প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী, আল্লাহের নির্দেশেই রমজান মাস জুড়ে ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা রোজা পালন করেন। কোরান অনুযায়ী, ইদের নমাজের আগে  জাকাত-আল-ফিতরের নিয়ম পালন করতে হয়। জাকাতের অর্থ দান‌ করা। ইদের দিনে সকালে উঠে সালাত-উল-ফজ্র- এর পর স্নান করে নতুন কাপড় পরেন সকলে মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা। তার পর প্রাতঃরাশের পর বিশেষ নমাজ পড়েন। অনেকে এদিন তকবীর পড়েন। খুশির এই উৎসবে এদিন বাড়িতে অতিথি আসেন। খাবার-দাবারের এলাহি আয়োজন থাকে। তবে এবার কলকাতার রেড রোডে যে নমাজ পড়া হত তা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ছোট ছোট করে সর্বাধিক ৫০ জন মিলে এই উৎসব পালন‌ করতে পারবেন। করোনা মহামারিতে কিছুটা ফিঁকে হলেও বাড়িতে বসেই আনন্দ করবেন‌ সকল মানুষ।

জনপ্রিয়

Back To Top