আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নির্ধারিত সময়েই হচ্ছে বিহারের ভোট। ২৮ অক্টোবর থেকে তিনটি পর্যায়ে হবে ভোট গ্রহণ। ফল ঘোষণা ১০ নভেম্বর। কোভিড আবহে এই প্রথম দেশে কোনও বড় ভোট হতে চলেছে। সেকথা মানলেন খোদ মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা। 
তিনি বললেন,  ভারতে শেষ বড় নির্বাচন ছিল দিল্লি বিধানসভা ভোট। তার পর থেকে দুনিয়াটা অনেকটাই বদলেছে। কোভিড মহামারী জীবনের সবক্ষেত্রে ‘‌নিউ নর্মাল’‌ আমদানি করেছে। এই নতুন দুনিয়ার সঙ্গে তাল মেলাতে ভোটের নিয়মে অদলবদল এনেছে কমিশন। জারি হয়েছে কড়া নির্দেশিকা। 
* ভোটদানের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। আগে ছিল সকাল সাতটা থেকে বিকেল পাঁচটা। এখন তা বেড়ে সন্ধে ছ’‌টা করা হল। (‌ব্যতিক্রম মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকা)‌‌
* কোভিড আক্রান্ত বা উপসর্গযুক্ত রোগীরা শেষ ঘণ্টায় ভোট দিতে পারবেন।
* প্রচারে দূরত্ববিধি মানতে হবে। কাউকে স্পর্শ করা যাবে না।
* ৮০ বছরের বেশি বয়সিরা পোস্টাল ব্যালটের সুবিধা পাবেন।
* কমিশন জানিয়েছে, বিহার ভোটের জন্য সাত লক্ষ হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ৪৬ লক্ষ মাস্ক, ছ’‌ লক্ষ পিপিই কিট, ছ’‌ লক্ষ ৭০ হাজার পিপিই কিট, ২৩ লক্ষ জোড়া গ্লাভস জোগাড় করা হয়েছে।
* দরজায় ঘুরে প্রচার করতে পারবেন সর্বাধিক তিন জন। রোডশোয়ে ১০টির বদলে এখন সর্বাপেক্ষা পাঁচটি গাড়ি রাখা যাবে। হলফনামা জমা দিতে যাওয়ার সময় প্রার্থীর সঙ্গে দু’‌জন যেতে পারবেন। 
* একটি বুথে সর্বাধিক ১০০০ জন ভোট দিতে পারবেন। 
* বুথে ঢোকার সময় ভোটারদের তাপমাত্রা মাপা বাধ্যতামূলক। সকলকে মাস্ক পরে বুথে ঢুকতে হবে।
* নির্বাচনী বৈঠক পর্যবেক্ষণ করবে কমিশন এবং স্বাস্থ্য দপ্তর। দূরত্ব–বিধি মানতে হবে। 
প্রচারে সর্বাপেক্ষা কত জন থাকতে পারবেন, এই নিয়ে আরোরাকে প্রশ্ন করা হয়। জবাবে তিনি বলেন, এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে জেলা প্রশাসন এবং কালেক্টর। প্রচার সভার জন্য কয়েকটি জায়গা ইতিমধ্যে তারা নির্ধারণ করেছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top