ওড়িশা উপকূলে সফল উৎক্ষেপণ হল আকাশ মিসাইলের 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অতি উন্নতমানের আকাশ মিসাইলের সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করল প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা। বুধবার ওড়িশা উপকূলে ইন্টিগ্রেটেড টেস্ট রেঞ্জে ভূমি থেকে বায়ুতে হামলা চালাতে সক্ষম আকাশ মিসাইলের সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়। জানা গেছে এই ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি। ফলে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভর হওয়ার দিশায় আরও একধাপ এগিয়ে গেল ভারত। এর আগে ২০১৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে স্থলসেনা ও বায়ুসেনায় অন্তর্ভুক্ত হয় আকাশ মিসাইল সিস্টেম। এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্রহ্মস এর মতোই সুপারসনিক। এর সর্বাধিক গতি হল ২.৫ ম্যাক (৩০৮৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা)। এটি মধ্যম পাল্লার মিসাইল, যেটা ২৫ কিমি পর্যন্ত দূরে থাকা লক্ষ্যকে সহজেই ধ্বংস করতে পারবে। ৬০ কিলোগ্রাম পর্যন্ত বিস্ফোরক বহন করতে সক্ষম আকাশ মিসাইল। এই অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি যুদ্ধবিমান, ড্রোন, ক্রুজ মিসাইল নিমেষে ধ্বংস করতে সক্ষম। এটা ঘটনা গতবছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতেই ক্যাবিনেটের বৈঠকে ‘আকাশ’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি রপ্তানিতে সম্মতি দেওয়া হয়। অস্ত্র রপ্তানির মাধ্যমে ২০২৫ সাল পর্যন্ত ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ৩৬ হাজার কোটি) আয়ের লক্ষমাত্রা রয়েছে সরকারের। এখনও পর্যন্ত প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে শুধুমাত্র যন্ত্রাংশ রপ্তানি করত ভারত। কিন্তু এবার আকাশ মিসাইল রপ্তানিতে সবুজ সংকেত দিয়েছে কেন্দ্র। চিনকে নজরে রেখে ভিয়েতনাম ও ইন্দোনেশিয়াকে আকাশ এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ভারতের।