আজকাল ওয়েবডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর বড়সড় পদক্ষেপ নিলেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। তা নিয়ে বিতর্কও উঠেছে যথেষ্ট। অসমে মুসলিম সম্প্রদায়ের শরণার্থীদের পরিবার পরিকল্পনায় মন দিতে বললেন তিনি, যাতে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে থাকে। অসমের মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, এর ফলে জবরদখলের মতো সামাজিক দুষ্কর্ম কমবে।
শর্মা বলেন, এভাবে যদি জনসংখ্যা বাড়তেই থাকে একদিন কামাক্ষ্যা মন্দিরের জমিও জবরদখল হয়ে যাবে। মুখ্যমন্ত্রিত্বের সবে একমাস পূর্ণ হওয়ার পর গুয়াহাটিতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই বক্তব্য পেশ করলেন তিনি। জবরদখল নিয়ে সরকার কী পদক্ষেপ নিচ্ছে, সেই প্রশ্নের উত্তরেই মুসলিম শরণার্থীদের প্রতি এই বার্তা। 
মধ্য এবং নিম্ন অসমে বাঙালি ভাষাভাষী মুসলিমদের বাস, যাঁদের বাংলাদেশ থেকে আগত শরণার্থী হিসেবে মনে করা হয়। অসমের ৩.১২ কোটি জনসংখ্যার প্রায় ৩১ শতাংশই এই শরণার্থী মুসলিমরা। ১২৬টি বিধানসভা আসনের মধ্যে অন্তত ৩৫টিতে এদের ভোট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয়। সাম্প্রতিক নির্বাচনে বিজেপি-র অন্যতম ইস্যু ছিল অসমের আদি জনজাতির সুরক্ষা। ভোটে জিতে ফের সেদিকেই নজর দিল রাজ্যের বিজেপি সরকার।  
 

জনপ্রিয়

Back To Top