আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কৃষকদের সমস্যা মেটাবেন বলে অঙ্গীকার করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রচার করা হয়েছিল বিভিন্ন প্রকল্প ব্যাপকভাবে। কিন্তু সত্যিই কী তা হয়েছে?‌ এই প্রশ্নই এখন উঠতে শুরু করেছে। কারণ ঋণের দায়ে জর্জরিত কৃষক মুক্তি পেতে নিজের একটি কিডনি বিক্রির বিজ্ঞাপন দিলেন। বছর তিরিশের এই কৃষক সরকারি ঋণের জন্য একাধিকবার ব্যাঙ্কের দ্বারস্থ হওয়ার পরেও ব্যর্থ হয়েই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর। তবে এবারও ঘটনাস্থল যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশ।
এই বিষয়ে ছত্তরসালি গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা রামকুমার জানান, সম্প্রতি তিনি কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী কুশল বিকাশ যোজনা প্রকল্পে পশুপালনের জন্য একটি কোর্স করেন। কিন্তু কোর্স শেষ করার পর নিজের ডেয়ারি ফার্ম খুলতে গিয়ে বিপাকে পড়েন। সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া বক্তব্যে তিনি জানান, ‌ফার্ম খোলার জন্য নিজের আত্মীয়, পরিজন এবং বন্ধুদের কাছে হাত পাততে হয়। কিন্তু সেই টাকা গরু–মোষের জন্য একটা ছাউনি তৈরি করার কাজেই ব্যয় হয়ে যায়। এখন সেই সমস্ত আত্মীয়রাই টাকা ফেরতের জন্য চাপ দিচ্ছেন। শুধু ধার দেওয়া টাকাই নয়, সঙ্গে সুদের টাকাও দাবি করছেন তাঁরা।
এই পরিস্থি্তিতে পড়ে ঋণের টাকা মেটাতে নিজের কিডনি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন রামকুমার। এমনকী তিনি বিজ্ঞাপনও দেন স্থানীয় স্তরে। যা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর ডিভিসনাল কমিশনার সঞ্জয় কুমার বলেন, ‘‌তিনি নির্দিষ্ট করে কিছু জানেন না। ঘটনার কথা আমি এই মাত্র শুনলাম।  পুরো বিষয়টির খোঁজ নেওয়া হবে। ব্যাঙ্ক কেন ঋণ দেয়নি, সে বিষয়েও তদন্ত করা হবে।’‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top