আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনা আতঙ্কের মাঝেই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল রাজধানী দিল্লিতে। বিধ্বংসী আগুনে একসঙ্গে পুড়ে ছাই ১৫০০টি ঝুপড়ি ঘর। সোমবার গভীর রাতে সবাই যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন, সেইসময়ই আগুন লাগে দক্ষিণ–পূর্ব দিল্লির তুঘলকাবাদের একটি বস্তিতে। আগুনের লেলিহান শিখা নিমেষে গ্রাস করে নেয় গোটা বস্তিকে। মুহূর্তে ভস্মীভূত হয়ে যায় বস্তির ১৫০০টি ঘর। 
তবে আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গেই দিল্লি পুলিশ ও দমকল অত্যন্ত তৎপরতার সঙ্গে বস্তিবাসীকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যায়। ফলে প্রাণহানির কোনও ঘটনা ঘটেনি বলেই জানা গিয়েছে। দিল্লি দমকলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, রাত ১২টা ৫০ মিনিট নাগাদ আগুন লাগার খবর আসে। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় দমকলের ২৮টা ইঞ্জিন। তৎপরতার সঙ্গে খালি করা হয় বস্তি। প্রায় ঘণ্টা তিনেকের চেষ্টায় ভোর পৌনে ৪টে নাগাদ আগুন নেভাতে সক্ষম হন দমকল কর্মীরা। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে ছাই বস্তির ১৫০০ ঘর। ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত পরিমাণ এখনও জানা না গেলেও পুড়ে ছাই অতি কষ্টে জমানো সঞ্চয়। দক্ষিণ দিল্লির ডিসিপি জানিয়েছেন, মুহূর্তের মধ্যে প্রায় ১০০০ থেকে ১২০০ ঘরে আগুন ধরে যায়। তারপর আগুন আরও ছড়ায়। ক্ষয়ক্ষতি পরিমাণ হিসেব করে দেখা হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত প্রাণহানির কোনও খবর নেই।

 

 

এদিকে, মঙ্গলবার সকালেই কেশবপুরম এলাকার একটি জুতোর কারখানায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে দমকলের ২৩টি ইঞ্জিন। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি ঠিক কী কারণে আগুন লাগল, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জনপ্রিয়

Back To Top