আজকালের প্রতিবেদন,দিল্লি: রাজ্যসভায় রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যাবাদজ্ঞাপক প্রস্তাবের বিতর্কে অংশ নিয়ে ডেরেক ও’ব্রায়েন যখন সরকারের কাজকর্মের সমালোচনা করছেন, সেই সময়ে হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় রাজ্যসভা টিভির সম্প্রচার। ফলে প্রায় মিনিট পাঁচেক ডেরেকের বক্তব্য শোনা যায়নি। রাজ্যসভা টিভির তরফে বলা হয়েছে, যান্ত্রিক গোলযোগের কারণেই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল সম্প্রচার। কিন্তু এই যুক্তি মানতে নারাজ তৃণমূল। ডেরেক–সহ দলের সাংসদদের দাবি, এটাও বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করার একটা কৌশল। ডেরেক এই ঘটনাকে চক্রান্ত বলে অভিহিত করেছেন। 
অন্যান্য বিরোধী সাংসদদের সুরে সুর মিলিয়েই ডেরেক আজ মোদি সরকারের বিরুদ্ধে দেশে ভয়ের আবহ সৃষ্টির অভিযোগ আনেন। মোদির রাজত্বে পশ্চিমবঙ্গকে কীভাবে বঞ্চনা করা হচ্ছে, সে–‌কথাও বিস্তারিতভাবে তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। অন্যদিকে, আজ রাজ্যসভার বিশেষ উল্লেখপর্বে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু এবং স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিনকে জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করার দাবি তোলেন তৃণমূল সাংসদ বিবেক গুপ্তা। আর সংসদ বসার আগে সকালে গান্ধীমূর্তির সামনে প্রস্তাবিত ব্যাঙ্কিং বিল এবং পেট্রল–ডিজেলের দাম বাড়ার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল সাংসদেরা। মিনিট পনেরো ধরে চলা এই বিক্ষোভে ছিল সরকারের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান। তৃণমূল সাংসদদের হাতে ছিল প্ল্যাকার্ডও।

 

বিক্ষোভে তৃণমূল সাংসদরা। সংসদ চত্বরে, বুধবার। ছবি: পিটিআই

জনপ্রিয়

Back To Top