আজকাল ওয়েবডেস্ক: গোটা পৃথিবী এখন জবুথবু। করোনা ভাইরাস সবার ভিতরে আতঙ্কের বীজ বপন করে দিয়েছে। কিন্তু হাল ছাড়লে তো চলবে না। মনোবল এখন বড় ওষুধ। আর তাকেই রসদ জোগাতে মাঠে নামলেন কোভিডের চিকিৎসেকরা। নাচে গানে প্রতিযোগিতায়, সুস্বাদু খাবারে মাতিয়ে রাখলেন বেঙ্গালুরুর ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। শুধু শারীরিক স্বাস্থ্য না, মানসিক স্বাস্থ্যের দিকেও সমান তালে খেয়াল রাখছেন তাঁরা। গত সাতদিন ধরে তাঁরা হাসপাতালেই রাত কাটাচ্ছেন। আর সেই সুযোগেই সকলের মুখে হাসি ফোটানোর উপায়ও বের করছেন।
 ৬০–এর দশকের বিখ্যাত গান ‘লিখে যো খাত তুঝে‌’–এর তালে তালে নাচ করলেন তাঁরা। পরনে কিন্তু ৬০–এর দশকের পোশাক নয়। এই দশকের জনপ্রিয় পোশাক, পিপিই। হাসপাতালে বর্তমানে যতজন কোভিড রোগী রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ১৮ জন শিশু। তাদের হাতে চকোলেট পৌঁছে যাচ্ছে। সময় কাটানোর জন্য ক্যারাম বোর্ড পেয়ে যাচ্ছে তারা।‌ মহিলা রোগীদের জন্য মেহেন্দি পরানোর প্রতেযোগিতা ও বাচ্চাদের জন্য আঁকার প্রতিযোগিতার আয়োজনও করা হচ্ছে। যাঁরা জিতছেন, তাঁদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরস্কারও। ‘‌নিজেদের জন্য খাবার বানানোর সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালের বাকি কর্মীদের জন্যেও রান্না করছি আমি আর ডাঃ বালাজী পাই।’‌ জানালেন ডাৎ আসমা বানু।
কর্নাটক মাঝে খানিক সামলে উঠলেও আবার করোনার প্রকোপ বাড়ছে সেখানে। মঙ্গলবার একদিনে সেখানে করোনা আক্রান্তেক সংখ্যা ছিল ৩৮৮। সেরাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত ৩৭৯৬।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top