করোনার তৃতীয় ঢেউ আটকানো সম্ভব, বলছে কেন্দ্র

আজকাল ওয়েবডেস্ক: করোনার তৃতীয় কেউ আটকানো সম্ভব। গত ২১ জুন একদিনে ৮৫ লক্ষেরও বেশি টিকাকরণ হওয়ায় হওয়ার পর আশাবাদী কেন্দ্র। নীতি আয়োগ-এর সদস্য ভিকে পাল মঙ্গলবার বলেন, যদি সমস্ত রকমের কোভিড বিধি মেনে চলা হয় তবে সেক্ষেত্রে তৃতীয় ঢেউ আটকানো সম্ভব। আর সেই সঙ্গে দরকার ভ্যাকসিনেশন। এই দুটি বিষয় মাথায় রেখে চললে কেন আমরা করোনার তৃতীয় ঢেউকে আটকাতে পারব না?

অনেক দেশ আছে যেখানে করোনার দ্বিতীয় ঢেউই আসেনি। আর আমরা কোভিড বিধি মেনে চললে এই মহামারী কেটে যাবে। এরই সঙ্গে তিনি সমস্ত অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ শুরুর পক্ষে মত দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রতিদিনের কাজ করতে হবে। আমাদের সামাজিক জীবন বজায় রাখতে হবে, স্কুল-কলেজ, ব্যাবসা চালু করতে হবে। সেই সঙ্গে আমাদের অর্থনীতির ওপর জোর দিতে হবে। আর সেইসব তখনই সম্ভব যখন ভ্যাকসিনেশনে গতি আসবে।’

এদিন পাশাপাশি তিনি বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছে। এখনই সবচাইতে ভাল সময় ভ্যাকসিন নেওয়ার। ভ্যাকসিনের ভীতি প্রসঙ্গে ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজারি গ্রুপ অন ইম্যুনাইজেশন ইন ইন্ডিয়া (NTAGI)-র চেয়ারপারসন এনকে আরোরা বলেন, ‘জন ভাগীদারী এবং জন জাগরণ ভ্যাকসিনেশনের ভীতি দূর করতে পারে। ভ্যাকসিন নেওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ মানুষের হাতেই রয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের প্রতিদিন ১ কোটি ২৫ লক্ষ ডোজ দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। সেক্ষেত্রে ভারত প্রতিদিন কমপক্ষে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়ার ক্ষেত্রে টার্গেট করছে।’