আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশজুড়ে কৃষি আইনের বিরুদ্ধে ‘জেহাদ’ শুরু করেছে কংগ্রেস। যার এপিসেন্টার পাঞ্জাব। খোদ রাহুল গান্ধী পাঞ্জাবে ‘খেতি বাঁচাও’ র‌্যালি করেছেন। অথচ সেই পাঞ্জাবেই নাকি কৃষকরা বঞ্চিত। সেখানকার কংগ্রেস সরকারই নাকি কৃষকদের ফসল ন্যূনতম সমর্থন মুল্য দিয়ে কিনছে না। সেখানেই নাকি ফসল সংরক্ষণের উপযুক্ত পরিকাঠামো নেই। একথা কোনও বিরোধী নেতা বলছেন না। বলছেন, কংগ্রেসেরই অত্যন্ত প্রভাবশালী নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী নভজ্যোত সিং সিধু। যা রীতিমতো অস্বস্তি বাড়িয়েছে কংগ্রেসের।
সিধুর অভিযোগ, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং বিতর্কিত এই কৃষি আইনের বিরুদ্ধে লড়ছেন ঠিকই। কিন্তু তিনি নিজের রাজ্যেই কৃষকদের বহু ক্ষেত্রে বঞ্চিত করছেন। পাঞ্চাবের কৃষকদের সমস্যা শুধু এই তিনটি কৃষি আইন নয়। পাঞ্জাবের কৃষকদের সমস্যা আরও বৃহত্তর। তিনি বলছেন, ‘‌আজ পাঞ্জাব সরকারের ফসল কেনার সুনির্দিষ্ট কোনও পদ্ধতি নেই। ধান আর গম ছাড়া অন্য কোনও ফসল মজুত রাখার পরিকাঠামো নেই। আমরা শুধু ৩ বছরের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। তারপর কী হবে ভাবছি না।’‌ কংগ্রেস নেতার অভিযোগ, ‘‌পাঞ্জাবের কৃষকদের সমস্যা যদি শুধু এই তিনটি কৃষি আইন হত, তাহলে বছরের পর বছর এভাবে হাজার হাজার কৃষক আত্মহত্যা করতেন না।’‌ সিধু বলছেন, আজকের দিনে ন্যূনতম সমর্থন মূল্যের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ ফসল বিক্রির গ্যারান্টি। সরকারের উচিত ন্যূনতম সমর্থন মূল্যের পাশাপাশি তৈলবীজ, ডাল, সবজি এবং ফল বিক্রির নিশ্চয়তা দেওয়া।
এদিকে, সিধুর এই অভিযোগকে পাত্তা না দিয়েই আজ বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে পাঞ্জাবের কংগ্রেস সরকার। বিধানসভায় নতুন আইন পাশ করিয়ে, এই আইন কার্যকর না করার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে তাঁরা। 

জনপ্রিয়

Back To Top