আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌ছত্রপাতি শিবাজী মহারাজের একটি মূর্তি নিয়ে মশকরা করেছিলেন মহিলা কমেডিয়ান। একবছর পর সেই ভিডিও তুলে এনে একের পর এক ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে তাঁকে। 
মুম্বইয়ের কমেডিয়ান অগ্রিমা যশুয়া। ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে একটি কমেডি শো হোস্ট করেছিলেন তিনি। ছত্রপাতি শিবাজী মহারাজের মূর্তি তৈরি হওয়ার কথা চলছিল তখন। সেখানে তিনি সেই মূর্তি তৈরি হওয়া নিয়ে মশকরা করে বলেছিলেন, তিনি ‘‌কোরা’ বলে একটি ওয়েবসাইটে দেখেছিলেন, একজন লিখেছিল,‌ ‘‌মূর্তির চোখ দিয়ে লেজার রে বেরিয়ে এসে আরব সাগরে থাকা পাকিস্তানি জঙ্গিদের মেরে দেবে এবং মূর্তির মধ্যে জিপিএস ট্র‌্যাকারও থাকবে।’ তাঁর সেই তথ্যটি দেওয়ার ভঙ্গি পছন্দ হয়নি অনেকের। সেকথা বোঝা যাচ্ছে, এই ঘটনার দেড় বছর বাদে। সেই ভিডিও তুলে এনে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর করতে চাইছেন কেউ, কেউ বা ধর্ষণের হুমকি দিয়ে চলেছে। যেই ক্যাফেতে এই শোটি আয়োজন করা হয়েছিল, সেই ক্যাফেটিতে গিয়ে ভাঙচুর করার হুমকিও দেওয়া হচ্ছে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার তরফে। অগ্রিমার বিরুদ্ধে মামলা করার চাপ দেওয়ায় মহারাষ্ট্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ পুলিশকে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছে। বলেছেন, ‘‌আপনারা কেউ নিজের হাতে আইন তুলে নেবেন না। যা পদক্ষেপ করা হবে তা আইন খোদ করবে।’ 

 

 

 

একটি টুইট করে অগ্রিমা জানিয়েছেন, ‘‌যদি ছত্রপাতি শিবাজী মহারাজের অনুগামীদের ভাবাবেগে আঘাত করে থাকি, তার জন্য ক্ষমা চাইছি।’ এছাড়া তিনি ভিডিও থেকে সেই অংশটুকুও কেটে বাদ দিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু তারপরে ভয়াবহ একটি ভিডিও পোস্ট করে শুভম মিশ্র‌ বলে গুজরাটের এক যুবক। যেখানে অত্যন্ত কুৎসিত ভাষায় অগ্রিমার মা, বোন এবং অগ্রিমাকে ধর্ষণ করার কথা বলা হয়। এবং জঘন্য একটি বর্ণনাও দেয় সে। এবং শেষে একথাও সে বলে, সে নাকি মহিলাদের সম্মান দেয়।    
এই ভিডিওটা দেখে বিশিষ্টজনেরা সহ বহু মানুষের রক্ত গরম হয়ে যায়। মুম্বই ও গুজরাট পুলিশের কাছে অনুরোধ জানানো হয়, যেন এই বিষয়ে পদক্ষেপ করা হয়। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন, অভিনেতা স্বরা ভাষ্কর, কমেডিয়ান কুনাল কামরা, প্রমুখ। টুইটারে হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ড শুরু হয়, ‘‌শুভম মিশ্রকে গ্রেপ্তার করা হোক।’ এরপরেই সেই ভিডিওটি ডিলিট করে দেয় শুভম। কিন্তু ক্ষমা চাওয়ার বদলে সে তার সেই কথাগুলিকেই ‌অন্যভাবে বলে। বেশ কয়েকটি অনলাইন আবেদন জমা পড়ার পর জাতীয় মহিলা কমিশন এই যুবকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে বলেছে গুজরাট পুলিশকে। এছাড়া অনিল দেশমুখ একটি টুইট করে এই ভিডিওটির নিন্দে করে মুম্বই পুলিশকে তদন্ত করতে নির্দেশ দিয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top