Vaccination Guide: ‌১৫–১৮ বয়সিদের টিকাকরণ কীভাবে?‌ বুস্টার ডোজের ক্ষেত্রেই বা করণীয় কী?‌ জানুন কেন্দ্রের নির্দেশিকা 

‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ৩ জানুয়ারি থেকে দেশে শুরু হচ্ছে ১৫–১৮ বয়সিদের টিকাকরণ।

এর পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর্মী, করোনা যোদ্ধা ও কো–মর্বিডিটি যাঁদের রয়েছে, সেই সমস্ত ষাটোর্ধ্বদেরও বুস্টার টিকা দেওয়া শুরু হবে। এই বিষয়েই মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ ভার্চুয়ালি বৈঠক করেন সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের স্বাস্থ্য কর্তাদের সঙ্গে। কীভাবে টিকাকরণ অভিযান চলবে, তার একটি রূপরেখা তৈরি করে দিয়েছেন রাজেশ। পাশাপাশি লিখিত নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে।
এখন দেখে নেওয়া যাক নির্দেশিকায় কী কী বলা হয়েছে:‌

আরও পড়ুন:‌ ষাটোর্ধ্বদের বুস্টার ডোজ, কোমর্বিডির প্রমাণ দিতে চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন লাগবে না


• ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের টিকাকরণ শুরু হবে ২০২২ সালের ৩ জানুয়ারি থেকে। স্বাস্থ্যকর্মী, করোনা যোদ্ধা এবং কো–মর্বিডিটি সম্পন্ন ষাটোর্ধ্বদের বুস্টার টিকা দেওয়া শুরু হবে ১০ জানুয়ারি থেকে।
• কো–মর্বিডিটি রয়েছে তার প্রমাণ হিসেবে চিকিৎসকের শংসাপত্র বা প্রেসক্রিপশনের কোনও প্রয়োজন নেই। তবে বুস্টার টিকা নেওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে।
• ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিরা টিকাকেন্দ্রে গিয়ে এবং অনলাইনে (কো–উইন অ্যাপের মাধ্যমে), দু’ভাবেই নথিভুক্ত করাতে পারবেন। মোবাইলে কো–উইন অ্যাপে নাম নথিভুক্ত করা যাবে ১ জানুয়ারি থেকে। সরেজমিনে নথিভুক্তকরণ শুরু হবে ৩ জানুয়ারি থেকে।
• রাজ্যগুলোকে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সি টিকা গ্রহীতাদের জন্য পৃথক করোনা টিকাকরণ কেন্দ্র তৈরি করতে বলা হয়েছে। একই টিকাকরণ কেন্দ্রে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের জন্য পৃথক টিকা দেওয়ার দল ও পৃথক লাইনের ব্যবস্থা প্রয়োজনে করতে হবে।
• ভোটমুখী রাজ্যে ভোটকর্মীদের করোনা যোদ্ধা হিসেবে গণ্য করা হবে। সেক্ষেত্রে করোনা যোদ্ধাদের দ্বিতীয় টিকা নেওয়ার পর ন’মাস (টিকা নেওয়ার দিন থেকে ৩৯ সপ্তাহ) অতিক্রান্ত হতে হবে।
• ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের কোভ্যাক্সিন দেওয়া হবে। কারণ শুধুমাত্র এই টিকাই এই বয়সসীমার ব্যক্তিকে দেওয়ার জন্য ছাড়পত্র পেয়েছে। 

আকর্ষণীয়খবর