আজকাল ওয়েবডেস্ক: সিবিএসই–তে ৫০০ তে ৫০০ পেল বুলন্দশহ্‌র–এর দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। কোনও টিউশন ছাড়াই। 
সিবিএসই–এর দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ পেয়েছে সোমবার দুপুরে। পাশের হার আগের বছরের চাইতে বেশি। গোটা দেশের পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩৮,৬৮৬ জন পড়ুয়া ৯৫ শতাংশের বেশি নম্বর পেয়েছে। কিন্তু নজরকাড়া নম্বর পেল কলাবিভাগের ছাত্র তুষার সিং। দিল্লি পাবলিক স্কুলের ছাত্র। পুরো নম্বর পেয়ে প্রথম হল গোটা দেশে। বহু বছর ধরেই যেখানে বেসরকারি টিউশন নেওয়ার চল তৈরি হয়েছে পৃথিবীতে, সেখানে তুষার দ্বাদশ শ্রেণী পাশ করল কোনও বেসরকারি টিউশন ছাড়াই। প্রত্যেকটি বিষয়েই সে ১০০–তে ১০০ পেয়েছে। সিবিএসই সরকারিভাবে কোনও মেধার তালিকা তৈরি করেনি। কিন্তু তুষার তার স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর ব্যাচে প্রথম হয়েছে। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস নিয়ে স্নাতক পর্যায়ের পড়াশোনা করতে চায় সে। হতে চায় আইএএস অফিসার। তার বিষয় ছিল, ইতিহাস, ইংরেজি কোর, পলিটিক্যাল সায়েন্স, ভূগোল, ফিজিক্যাল এডুকেশন। তার মুখ থেকে শোনা যাক, ‘‌আমি কোনও কঠের নিয়ম পালন করিনি পড়োশোনা করার ক্ষেত্রে। তবে হ্যাঁ, ৭ ঘণ্টা করে পড়তাম আমি রোজ। আমি মোবাইল ফোন বন্ধ রাখতাম না। সোশ্যাল মিডিয়ায় যথেষ্ট সক্রিয় আমি। বিরতির সময়ে আমি টেলিভিশনও দেখতাম। আমি একাদশ শ্রেণীতে পড়াকালীন টিউশন নিয়েছিলাম। কিন্তু দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ড পরীক্ষার প্রস্তুতির সময়ে আমি যাইনি আর। কোনও সমস্যা হলে স্কুলের শিক্ষক বা শিক্ষিকার কাছ থেকে বুঝে নিতাম।’‌ সিবিএসই–এর নম্বর দেওয়ার পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তুষার বলল, ‘‌ইতিহাস বা ভূগোলের জন্য নির্দিষ্ট বই দেওয়া হয় আমাদের। সেটাই পড়ি। তাই এই দু’‌টি বিষয়ে পুরো নম্বর দেওয়া যায়। কিন্তু ইংরেজির মতো ভাষার বিষয়ে পুরো নম্বর দেওয়াটা ঠিক নয়। তার কারণ, কখনওই বলা যায় না, যেভাবে আমি লিখেছি, ঠিক সেভাবেই লিখতে হবে। বা সেটাই সবথেকে ভাল। আরও অনেকরকমভাবে লেখা যেতে পারে একটা উত্তর।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top