সংবাদ সংস্থা, ‌‌মুম্বই: উগ্র মৌলবাদীদের দাপট বেড়েই চলেছে। ক’‌দিন আগে সম্প্রীতির সুরে বাঁধা গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থা ‘‌তনিষ্ক’‌–‌এর বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় অতি সক্রিয় হয়েছিল মৌলবাদীদের ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী। ভিন ধর্মের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের বিজ্ঞাপনটি তুলে নিতে বাধ্য করেছে তারা। এবার অক্ষয় কুমারের নতুন ছবি ‘‌লক্ষ্মী বম্ব’‌–‌এর বিরুদ্ধে একইভাবে খড়্গহস্ত হয়েছে তারা। অভিযোগ করেছে, এই ছবিও লভ জেহাদের প্রচার করেছে। এবং হিন্দু ধর্মের অবমাননা করেছে। 
সুপারহিট তামিল ছবি ‘‌কাঞ্চনা’‌–‌র হিন্দি রি–‌মেক ‘‌লক্ষ্মী বম্ব’‌–‌এর নায়ক, অর্থাৎ অক্ষয় অভিনীত চরিত্রের নাম আসিফ। নায়িকা কিয়ারা আদবানির নাম প্রিয়া। এতে লভ জেহাদের ইঙ্গিত পেয়ে মৌলবাদীরা ছবিটির ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়েছে। তারওপর লক্ষ্মী নামের ব্যবহারে ইচ্ছাকৃতভাবে লক্ষ্মীদেবীর অপমান করা হয়েছে। এমনও অভিযোগ তাদের। 
ভুতুড়ে কমেডি ঘরানার এই ছবিতে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ লক্ষ্মী, মৃত্যুর পর অক্ষয় অভিনীত চরিত্র আসিফ অভিনীত চরিত্রের ওপর ভর করে। এহেন ‘‌অপমানে’‌ ‘‌শেম অন ইউ অক্ষয়’‌ ট্রেন্ড করছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। 
‘‌লক্ষ্মী বম্ব’‌ ছবির প্রযোজক সাবিনা খান কাশ্মীরি। টুইটারে একজনের মন্তব্য, ‘‌সাবিনা আসলে কাশ্মীরি বিচ্ছিন্নতাবাদী!‌ ছবিতে লক্ষ্মী লাল শাড়ি, লাল টিপ হাতে ত্রিশূল নিয়ে ঘোরে। দেওয়ালে দেবী লক্ষ্মীর ছবি দেখা যায়। তারপর আসিফের প্রেমিকার নাম প্রিয়া।’‌
হিন্দি ছবির স্বঘোষিত সমালোচক কমল রশিদ খানও ‘‌লক্ষ্মী বম্ব’‌ নিষেধাজ্ঞার দাবিতে সুর চড়িয়েছেন। টুইট করেছেন, ‘‌লক্ষ্মী একজন দেবী। আর অক্ষয় কুমার তাঁকে নিয়ে তামাশা করছেন। এই ছবিটি বয়কট করে দর্শক তাঁকে উচিত শিক্ষা দিক, যাতে তিনি ভবিষ্যতে এমন অন্যায় না করেন।’‌
কানাডার নাগরিক অক্ষয়ের উদ্দেশে তাঁর ঠেস, ‘‌এটা কানাডা নয়, ভারত। এখানে দেবদেবীদের পুজো করা হয়। হেয় করা হয় না।’‌ ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top