Rape Bishop: ফলভরা গাছেই লোকে ঢিল মারে! বললেন সন্নাসিনী ধর্ষণের দায় থেকে মুক্ত বিশপ 

আজকাল ওয়েবডেস্ক: সন্ন্যাসিনী ধর্ষণ মামলায় নির্দোষ প্রমাণিত হলেন কেরলের রোমান ক্যাথলিক বিশপ ফ্রাঙ্কো মুলাক্কাল।

কেরলের এক আদালত আজ তাঁকে ধর্ষণের দায় থেকে মুক্তি দেয়। মুক্তি পেয়ে স্পষ্টতই স্বস্তিতে বিশপ। খানিকটা আবেগপ্রবণও হয়ে পড়লেন তিনি। আনন্দে কেঁদে ফেললেন তিনি, জড়িয়ে ধরলেন তাঁর আইনজীবী এবং অনুগামীদের। আদালতের রায় নিয়ে বললেন, ‘ঈশ্বরকে ধন্যবাদ।’

 

আরও পড়ুন: ২৬ জানুয়ারির প্রাক্কালে সন্ত্রাস! গাজিপুর ফুলের বাজারে উদ্ধার দেড় কেজি আইইডি​ 


কঠিন সময়ে যাঁরা তাঁর পাশে ছিলেন, তাঁদের ধন্যবাদ জানালেন বিশপ ফ্রাঙ্কো। অগ্নিপরীক্ষা এবং তাতে উত্তীর্ণ হওয়া নিয়ে প্রবাদবাক্য শোনালেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘আমি প্রার্থনা করেছিলাম যাতে ঈশ্বরের সিদ্ধান্তই আদালতের সিদ্ধান্ত হিসেবে আসে। আমি একজন মিশনারি যার পৃথিবীকে দেখানোর দরকার ছিল যে ঈশ্বর আছে এবং ঈশ্বরের শক্তি আছে। আমি তা দেখানোর সুযোগ পেয়েছি। জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সবাই বুঝতে পেরেছে যে প্রার্থনায় শক্তি আছে। যারা সত্যকে ভালবাসেন এবং সত্যের পাশে থাকেন তাঁরা আমার সঙ্গে ছিলেন। মানুষ সেই গাছেই ঢিল মারে যে গাছে ফল আছে। আমি তা নিয়ে গর্বিত, প্রার্থনা চালিয়ে যাব।’
প্রসঙ্গত, কেরলের কোট্টায়াম জেলার এক কনভেন্টে সফরকালে এক সন্ন্যাসিনীকে একাধিকবার ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছিল ৫৭ বছর বয়সি বিশপের বিরুদ্ধে। সে সময় জলন্ধর এলাকার রোমান ক্যাথলিক বিশপ ছিলেন ফ্রাঙ্কো মুলাক্কাল। ওই সন্ন্যাসিনীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিশপের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয় ২০১৮ সালে। সন্ন্যাসিনীর অভিযোগ ছিল, ২০১৪ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত তাঁকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছিলেন বিশপ ফ্রাঙ্কো। তদন্তকারী স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিম ২০১৮ সালের নভেম্বরে তাঁকে গ্রেপ্তার করে। বিশপের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ না দিতে পারায় কোট্টায়ামের অতিরিক্ত দায়রা আদালত নির্দোষ হিসেবে রায় দেয়।    
 

আকর্ষণীয়খবর