আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভীমা কোরেগাঁও মামলা সংক্রান্ত সব নথি মুম্বইয়ে এনআইএ–র আদালতে পাঠাতে শুক্রবার সকালেই আদেশ দিয়েছে পুনের দায়রা আদালত। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি এই মামলায় সব অভিযুক্তদের এনআইএ আদালতে হাজিরা দিতে হবে। তারপরই এই ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের কড়া নিন্দা করেছেন জোটসঙ্গী তথা এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার। পুরো ঘটনাকে অসাংবিধানিক এবং আইনশৃঙ্খলা ইস্যুতে রাজ্যের বিচারকার্যে লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। পাওয়ার বলেন, ‘‌ভীমা কোরেগাঁও মামলায় মহারাষ্ট্র পুলিসের কয়েকজন কর্মীর ব্যবহার খারাপ ছিল। আমি চেয়েছিলাম ওই অফিসারদের ভূমিকার তদন্ত হোক।কিন্তু মহারাষ্ট্র সরকারের মন্ত্রীরা একদিন সকালে পুলিসের সঙ্গে দেখা করল আর ওই দিনই বিকেল তিনটের মধ্যে কেন্দ্র মামলা এনআইএ–র হাতে হস্তান্তরিতর নির্দেশ দিল।

সাংবিধানিক মতে এটা ভুল কারণ অপরাধমূলক তদন্ত রাজ্যের বিচার্য বিষয়। রাজ্যের হাত থেকে এই তদন্তভার কেন্দ্রের নিয়ে নেওয়াও যেমন ভুল তেমনই ভুল মহারাষ্ট সরকারের কেন্দ্রের সিদ্ধান্তকে সমর্থন।’‌ প্রসঙ্গত, গত ২৫ জানুয়ারি কেন্দ্র ওই মামলা এনআইএ–র হাতে তুলে কেন্দ্র। শুক্রবারই গৌতম নওলাখা এবং আনন্দ তেলতুম্বড়ের আগাম জামিন নাকচ করে দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। এব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করতে তাঁদের চার সপ্তাহ সময় দিয়েছে হাইকোর্ট। ২০১৮–র পয়লা জানুয়ারি পুনের কোরেগাঁও–এর ভীমা গ্রামে হিংসার ঘটনায় নওলাখা এবং তেলতুম্বড়েকে ইউএপিএ এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির হিংলা ছড়ানোর একাধিক ধারায় গ্রেপ্তার করা হয়েছিল     

জনপ্রিয়

Back To Top