Tripura TMC: ‌বছর ঘুরতে না ঘুরতেই তৃণমূল ছাড়লেন বিজেপি ছেড়ে ঘাসফুলে আসা আশিস দাস 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গত বছর দুর্গাপুজোয় বিজেপি ছাড়ার পর তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন।

বছর ঘোরার আগেই তৃণমূলও ছাড়লেন ত্রিপুরার সুরমার বিধায়ক আশিস দাস। তাঁর অভিযোগ, ত্রিপুরায় বিরোধীদের ভোট ভাঙিয়ে বিজেপিরই সুবিধা করে দিচ্ছে তৃণমূল। ত্রিপুরা তৃণমূল গোষ্ঠীবাজিতে ভরে গিয়েছে বলেও অভিযোগ আশিসের। শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘‌তৃণমূলে আমার আশাভঙ্গ হয়েছে। যে উৎসাহ নিয়ে আমি তৃণমূলে এসেছিলাম, সেটা হারিয়ে ফেলেছি।’‌ তাঁর অভিযোগ, ‘‌তৃণমূলে দলবাজি বেশি। দলে আমাকে কোণঠাসা করে রাখা হচ্ছে। এখানে কাজের পরিসর নেই।’‌ তাঁর দাবি, ত্রিপুরায় তৃণমূলের কোনও ভবিষ্যৎ নেই। ত্রিপুরার মানুষ বুঝে গিয়েছে তৃণমূল করা যাবে না। ওদের একটাই উদ্দেশ্য, কংগ্রেসের ভোট ভাঙিয়ে, অন্য বিরোধী দলের ভোট ভাঙিয়ে বিজেপির সুবিধা করে দেওয়া।
এটা ঘটনা, বিজেপি ছাড়ার পর মাথা মুড়িয়ে আদিগঙ্গায় স্নান করে এসেছিলেন। সেই আশিস এবার তৃণমূলও ছাড়লেন। আগামী ২৩ জুন আশিসের কেন্দ্র সুরমাতে উপনির্বাচন। তৃণমূলের দাবি, আশিস দীর্ঘদিন ধরেই জনবিচ্ছিন্ন। নিজের বিধানসভা কেন্দ্রেও যান না। তাঁর দলত্যাগের কোনও প্রভাব দলে পড়বে না। ত্রিপুরা তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুবল ভৌমিকের দাবি, ‘‌আমি তাঁকে নিয়ে খারাপ কথা বলতে চাই না। কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে দলে যোগ দেওয়ার পরও তাঁকে তৃণমূল‌ কংগ্রেসের কোনও অনুষ্ঠানে বা দলীয় কার্যে দেখা যায়নি। তিনি যখন তৃণমূলের একজন হিসাবে কাজ করছেন না, তখন তিনি কীভাবে, কেনই বা দল ছাড়বেন?’‌ শোনা যাচ্ছে, আশিস নতুন কোনও দল গড়ে বা অন্য কোনও দলে যুক্ত হয়ে ত্রিপুরার চার কেন্দ্রের উপনির্বাচনেই প্রার্থী দিতে চান। যদিও কংগ্রেসে তিনি যোগ দেবেন না বলেই জানিয়ে দিয়েছেন। 

 

আরও পড়ুন:‌ বেআইনি হোর্ডিং ভাঙতে তৎপর বহরমপুর পুরসভা 
 

আকর্ষণীয়খবর