আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নির্বাচনের সময় তাঁরা ছিলেন সম্মুখসমরে। একে অন্যকে মাঠে–ময়দানে বুঝে নিয়েছিলেন। তারপর মানুষের রায়ে ক্ষমতায় ফের তিনি। হ্যাঁ, তিনি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। যাঁকে ফোন করতে বাধ্য হয়েছিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর জানিয়েছিলেন শুভেচ্ছা। এবার এই মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার সময় যাতে প্রধানমন্ত্রী সেখানে হাজির থাকেন তার জন্য কেজরিওয়াল আমন্ত্রণ করলেন মোদিকে। যা একপ্রকার বেশ অস্বস্তিকর মোদির কাছে। 
উল্লেখ্য, দিল্লির ৭০টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ৬২টি পেয়েছে আম আদমি পার্টি। আর সেখানে ৮টি আসন নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বিজেপিকে। তারপর দিল্লি জুড়ে যে উৎসব শুরু হয়েছে তা বেজায় চাপ বাড়িয়েছে গেরুয়া শিবিরের। তারপর এই আমন্ত্রণপত্র বাড়তি অস্বস্তি তৈরি করল বলে মনে করা হচ্ছে। 
এখন প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, রামলীলা ময়দানে কেজরিওয়ালের শপথ অনুষ্ঠানে কী প্রধানমন্ত্রী আসছেন?‌ দিল্লির আপ শাখার আহ্বায়ক গোপাল রাই জানান, কোনও মুখ্যমন্ত্রী বা রাজনৈতিক নেতাকে এই শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করা হয়নি। এখানে শুধু দু’‌জনকে আমন্ত্রণ করা হয়েছে। এক, লিটল মাফলারম্যান, দুই, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। লিটল মাফলারম্যান থাকছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি। এখন দেখার রবিবার কি হয়। 

জনপ্রিয়

Back To Top