আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আরও তিনদিন সিবিআই হেপাজতেই থাকতে হবে কার্তি চিদম্বরমকে। মঙ্গলবার এই নির্দেশ দিয়েছেন পাতিয়ালা হাউস কোর্টের সিবিআই বিচারক। সিবিআই এদিন আদালতে কার্তির জন্য ৯ দিনের হেপাজতের আবেদন করে বলেছিল, তারা কার্তির বিরুদ্ধে আরও জোরাল তথ্য জোগার করেছে। সেই নিয়েই তারা কার্তিকে জেরা করতে চায়। একইসঙ্গে এদিন সিবিআই গোয়েন্দারা অভিযোগ করেন, কার্তির থেকে যে ফোনগুলি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল সিবিআই, সেগুলির পাসওয়ার্ড দিতে রাজি হচ্ছেন না পি চিদম্বরমপুত্র। এমনকি তাঁকে যখনই আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি সংক্রান্ত কোনও প্রশ্ন করা হচ্ছে, তখনই তিনি খালি বলছেন তিনি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার। 
এদিন সকালেই আদালতে গ্রেপ্তারি এড়াতে অন্তর্বর্তী নিরাপত্তার আবেদন করেছিলেন কার্তি। তাঁর আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি বলেন, প্রয়োজনে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত জেরা করুক সিবিআই, হেপাজতের দরকার কেন হবে। ১০ বছরের পুরনো মামলায় কীভাবে কোনও বয়ান বা তথ্যপ্রমাণ লোপাট করা সম্ভব সেই প্রশ্নও তোলেন সিংভি। সিবিআই–এর আইনজীবী পাল্টা বলেন, যে তথ্যপ্রমাণগুলি সিবিআই–এর হাতে এসেছে, তাতে কলকাঠি নাড়লে মামলার প্রচুর ক্ষতি হয়ে যাবে। সেজন্যই কার্তির মতো প্রভাবশালী মানুষের হেপাজতে থাকা দরকার।  এদিনই আদালতকে সিবিআই জানায় বাইকুল্লা জেলে ইন্দ্রাণী এবং পিটার মুখার্জির সামনাসামনি বসিয়ে প্রায় ৩ ঘণ্টা জেরা করা হয়েছে। কথোপকথনের রিপোর্ট মুখবন্ধ খামে বিচারককে পেশ করে সিবিআই। যদিও কার্তির আইনজীবীর দাবি, মাত্র ২৫ মিনিটই জেরা করা হয়। সরকারি আইনজীবী তুষার মেহতা বলেন এধরনের দুর্নীতিতে সারা দেশে প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। তার তদন্ত সময়সাপেক্ষ। তবে শুধু অভিযুক্তদের বয়ানেই মামলা চলছে না। তথ্যপ্রমাণও আছে গোয়েন্দাদের হাতে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top