আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সুশান্ত আত্মহত্যা করেননি। তাঁকে নাকি গলা টিপে মারা হয়েছিল। এই কথা বলেছিলেন এইমস–এরই এক চিকিৎসক। তেমনটাই দাবি করলেন সুশান্তের পরিবারের আইনজীবী বিকাশ সিং। বিষয়টি নাকি তাঁকে জানিয়েছিলেন ওই চিকিৎসক। 
সুশান্তের রহস্যমৃত্যুর ঘটনায় ফরেনসিক তদন্ত করেছেন এইমস–এর একটি দল। সেই দলেরই এক চিকিৎসক আইনজীবী বিকাশ সিংকে বলেছিলেন এই কথা। শুক্রবার টুইটারে বিকাশ লিখলেন, সিবিআই–এর তদন্ত নিয়ে তিনি বিরক্ত, হতাশ। সুশান্তের আত্মহত্যাটা যে আসলে খুন ছিল, সেই সিদ্ধান্ত নিতে এত সময় নিচ্ছে তারা। 
‘‌সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলা যে আসলে খুন, সেই সিদ্ধান্ত নিতে সিবিআই–এর এত সময় লাগছে দেখে হতাশ। এইমস দলের সদস্য, এক চিকিৎসক আমার পাঠানো ছবি দেখে অনেক দিন আগেই বলেছিলেন, তিনি ২০০ শতাংশ নিশ্চিত, গলা টিপে খুন হয়েছে। আত্মহত্যা নয়।’‌
১৪ জুন বান্দ্রার ভাড়া বাড়িতে সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। মুম্বই পুলিশ জানায়, আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত। পরে একের পর এক রহস্য উদ্ঘাটন হয়। এক মাসেরও বেশি সময় পর, সুশান্তের বাবা কে কে সিং পাটনার থানায় ছেলের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর করেন। অভিযোগ, তাঁর ছেলের টাকা নয়ছয় করেছেন। আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছেন। 
বিহার সরকারের সুপারিশে মামলার তদন্ত শুরু করে সিবিআই। টাকা তছরুপের অভিযোগ থাকায় ইডিও তদন্তে নামে। তদন্তের সময়ই রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে মাদকের যোগসূত্র ধরা পড়ে। তদন্তে নামে এনসিবি। রিয়া এবং তাঁর ভাইকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযোগ, সুশান্তকে মাদর জুগিয়েছেন তাঁরা। 

জনপ্রিয়

Back To Top