আজকাল ওয়েবডেস্ক: এবার মিশন উত্তরপ্রদেশ। আগামী দিনে বিজেপির স্ট্র্যাটেজি কী হবে তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে দিল্লি সফরে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বুধবার কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন জিতিন প্রসাদ। আর তারপরেই এই সফরের গুরুত্ব আরও বেড়ে গিয়েছে। আজ দীর্ঘ দেড় ঘণ্টা অমিত শাহের সঙ্গে কথা হয় যোগীর এবং আগামিকাল প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন তিনি। 

সূত্রের খবর, বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া খবরে উত্তরপ্রদেশে বর্তমান সরকারের নেতৃত্বের ওপর চিন্তিত দিল্লি বিজেপি।‌ করোনা ঠেকাতে যোগী আদিত্যনাথের অদক্ষতার কথাও প্রকাশ্যে এসেছে। যোগী আদিত্যনাথের কর্মকাণ্ড ব্রাহ্মণ নেতাদের মধ্যেও অসন্তোষ দেখা যাচ্ছে। তারই সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের সরকারের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে সোশ্যাল মিডিয়া সহ অন্যান্য জায়গায় সমালোচনার ঝড় বইছে। এই পরিস্থিতিতে যোগী আদিত্যনাথের ক্যাবিনেটকে ভোটের আগে ঠিকঠাকও করতে চাইছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। এ কে শর্মাকে ক্যাবিনেটে ঢোকানো হতে পারে বলে বিজেপি সূত্রে খবর। 

আর অন্যদিকে, উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা জিতিন প্রসাদের বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় নতুন সমীকরণের সৃষ্টি হয়েছে। জিতিন প্রসাদকে নির্বাচনের আগেই কোনও বড় পদ দেওয়া হতে পারে বলে সূত্রের খবর। তারই সঙ্গে ব্রাহ্মণ ভোটকে কাজে লাগাতে জিতিনকে ব্যবহার করা হতে পারে বলে মনে করছে বিজেপির একাংশ। জিতিনের এই গেরুয়া শিবিরে যোগদানের পর নিজের পায়ের জমি কতটা শক্ত তা মাপতেই হয়ত দিল্লি পাড়ি দিলেন যোগী আদিত্যনাথ, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

জনপ্রিয়

Back To Top