আজকাল ওয়েবডেস্ক: পুরনো প্রবাদ, প্রকৃত প্রেম মানুষকে বিশ্বজয়ী করতে পারে। সেই প্রমাণই দিলেন উত্তর প্রদেশের গোল্ডি। নিজের প্রেমিক বীরন্দ্র কুমারকে বিয়ে করতে কানপুর থেকে কনৌজ পর্যন্ত একাই হেঁটে গেলেন  এই যুবতী। ২৩ বছরের বীরেন্দ্রর সঙ্গে ২০ বছরের গোল্ডির বিয়ের দিন প্রথমে মার্চে তারপর এমাসের চার তারিখ স্থির হয়েছিল। কিন্তু লকডাউনের জন্য দুবারই তা পিছিয়ে যায় এবং গোল্ডির অভিভাবকরা কড়া ভাষায় জানিয়ে দেন লকডাউন কাটার আগে বিয়ে হবে না। এতেই মুষড়ে পড়ে যুগল। তারপর গত বুধবার বিকেলে গোল্ডি কাউকে না জানিয়ে একাই কানপুরের তিলক গ্রামের বাড়ি থেকে হাঁটতে শুরু করেন কনৌজের বৈসাপুর গ্রামে বীরেন্দ্র বাড়ি পর্যন্ত। হঠাৎ গোল্ডিকে দেখে চমকে যান বীরেন্দ্রর পরিবারের সবাই। কিন্তু হবু পুত্রবধূকে ভর্ৎসনা না করে বীরেন্দ্র পরিবারের লোকজনই গ্রামের একটি পুরনো মন্দিরে কোনওরকমে গোল্ডি–বীরেন্দ্রর বিয়ের ব্যবস্থা করেন। তবে লকডাউন বিধি মেনেই বিযে সম্পন্ন হয়। বরকনে দুজনেই মুখে মাস্ক পরে বিয়ে সারেন। বিয়েতে বীরেন্দ্র পরিবার ছাড়া এক সমাজকর্মীও অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top