আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ প্রধানমন্ত্রীর রাজ্যের কলেজে বেনজির ঘটনা। গুজরাটের ভূজে মেয়েদের কলেজ হস্টেলে ঘটল লজ্জাজনক এক ঘটনা। হস্টেলের আবাসিকদের কেউ রজঃস্বলা কিনা কি না তা নিশ্চিত করতে তাঁদের বিবস্ত্র করা হল। আর ঘটনাটি ঘটল কলেজের প্রধান শিক্ষিকা এবং অন্যান্য শিক্ষিকাদের উপস্থিতিতে। বিজেপি শাসিত রাজ্যে এই ঘটনা নিয়ে এখন হইচই পড়ে গিয়েছে। 
দ্য আহমেদাবাদ মিররের রিপোর্ট অনুযায়ী, ঘটনাটি ঘটেছে ভূজের সাহজানান্দ গার্লস ইনস্টিটিউটে। হস্টেলের এক আবাসিক জানান, মোট ৬৮ জনকে এই লজ্জাজনক পরীক্ষা দিতে হয়েছে। জোর করে অন্তর্বাস খুলে পরীক্ষা করা হয়েছে তাঁরা রজঃস্বলা কিনা। অসম্ভব মানসিক নির্যাতনের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। কী পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল বলে বোঝানো একপ্রকার অসম্ভব।
এমনকী আবাসিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, অন্য ছাত্রীদের থেকে দূরে থাকতে। রান্নাঘরে প্রবেশ করা যাবে না এবং নিকটবর্তী মন্দিরে প্রবেশ করা যাবে না। সত্যিই নির্দেশ পালিত হচ্ছে কিনা তা পরীক্ষা করতেই জোর করে অন্তর্বাস খুলে নেওয়া হয়। যা নিয়ে শোরগোল পড়ে যায়। এই ঘটনার পরেই পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কচ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এই কমিটির শীর্ষে রয়েছেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য দর্শনা ঢোলাকিয়া। কলেজে গিয়েও কথা বলেন কমিটি সদস্যরা।
জানা গিয়েছে, এই ঘটনার সূত্রপাত হয় যখন হস্টেলের বাগানে একটি ব্যবহৃত স্যানিটারি ন্যাপকিন পড়ে থাকতে দেখা যায়। তখনই কলেজ কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয় অপরাধীকে খুঁজে বের করতে সবাইকে পরীক্ষা করে দেখা হবে। এই ঘটনায় বিক্ষিপ্ত অভিভাবকরা কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করার কথা ভাবছেন।

জনপ্রিয়

Back To Top