গরবায় ‘‌Love Jihad’‌!‌ ক্ষোভ জানিয়ে উৎপাত বজরং দলের, পাল্টা গ্রেপ্তার ৪ সংখ্যালঘু

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কলেজ গরবার আয়োজন করেছে। তাতে কেন মুসলিমরা ঢুকেছেন?‌ এভাবে আসলে লভ জিহাদেই ইন্ধন দেওয়া হচ্ছে। এসব অভিযোগ তুলেই এক কলেজে রীতিমতো তাণ্ডব করল বজরং দল। যদিও পুলিশ এসে চার মুসলিম যুবককেই ধরে নিয়ে গেল। তাঁদের মধ্যে আবার দু’‌জন ওই কলেজেরই ছাত্র। এই ঘটনা মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের।
পুলিশ জানিয়েছে, ঝামেলা এড়াতেই ওই চার জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কারণ ইন্দোরের অক্সফোর্ড কলেজে এই নিয়ে সংঘর্ষ শুরু হয়ে গেছিল। পরে চার জনকেই জামিন দেওয়া হয়। ৫০ হাজার টাকা বন্ডের বিনিময়ে। যদিও বজরং দলের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করেনি পুলিশ। এমনকী কলেজ কর্তৃপক্ষকে কোভিড বিধি ভাঙার জন্য জরিমানা করেছে। এর পরেই আঙুল উঠেছে পুলিশ ও প্রশাসনের দিকে। ধৃতদের পরিবারের অভিযোগ, নামের জন্যই জেলে যেতে হয়েছে চার জনকে।
ধৃতদের নাম আদনান শাহ, মহম্মদ উমর, আবদুল কাদির, সৈয়দ শাকিব। ২১ বছরের আদনান ওই কলেজেই পড়েন। তিনি গরবার অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবী ছিলেন। রবিবার সাইকেল পার্ক করানোর দায়িত্বে ছিলেন তিনি। তখনই চড়াও হয় বজরং দল। আদনানের অভিযোগ, ২৫ জন স্বেচ্ছাসেবী ছিলেন। কাউকে কিছু বলা হয়নি। শুধু পরিচয়পত্র দেখে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হয়, কেন তিনি সেখানে। 
বজরং দলের দাবি, কলেজে লভ জিহাদ ছড়ানো হচ্ছে। যাতে মুসলিম ছেলেরা ফুঁসলিয়ে হিন্দু মেয়েদের বিয়ে করতে পারে। বজরং দল নেতা তরুণ দেবড়া বলেন, গরবায় ৮০০ জনের থাকার কথা ছিল। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ টিকিট বিক্রি করেছে। ‘‌মুসসিমদের প্ররোচনা’‌ দিচ্ছে গরবায় যোগ দিতে।