আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সেলফি সংক্রমণ যেন প্রতিদিন দ্বিগুণ হারে বাড়ছে। এতদিন পুলিসি ঝামেলা এড়িয়ে যেতে দুর্ঘটনায় আহতদের দেখেও দেখতেন না পথচারীরা। এবার সেলফি ম্যানিয়া যে তাঁদের ঘাড়ে চেপে বসেছে তার দেখা মিলল রাজস্থানে।  বারমেঢ় জেলায় একটি স্কুল বাসের ধাক্কায় উল্টে যায় মোটরবাইক। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে ছিলেন তিন মোটরবাইক আরোহী। তাঁদের উদ্ধার করা তো দূরের কথা। রক্তাক্ত ক্ষতবিক্ষত রাস্তায় পড়ে থাকা আহতদের সঙ্গে সেলফি তুলতেই মশগুল হলেন সেখানকার বাসিন্দারা। অনেকে আবার তাঁদের রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকার দৃশ্য মোবাইল ক্যামেরায় ভিডিও করলেন। এসবের হুল্লোড়ে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বেমালুম ভুলে গেলেন তাঁরা।

প্রায় ঘণ্টা খানেক ধরে চলল এই সেলফি তোলার প্রতিযোগিতা। ততক্ষণে যেটুকু প্রাণ বাকি ছিল আহতদের শরীরে সেটুকুও শেষ হয়ে গিয়েছে। 
পথদুর্ঘটনায় যাঁরা মারা গেলেন তাঁরা সকলেই গুজরাটের শ্রমিক। প্রেমচাঁদ, চাঁদরাম এবং জেমারাম এই তিন জন গুজরাটে নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করেন। দু’‌দিনের  জন্য রাজস্থানের বারমেঢ়ে এসেছিলেন ঠিকা শ্রমিক ভাড়া করার জন্য। 
পুলিস জানিয়েছে সেখানকার বাসিন্দারা সঠিক সময়ে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিন জনেই বেঁচে যেত। 
এর আগেও সেলফি তোলার জন্য দুর্ঘটনা ঘটেছে। প্রাণ গিয়েছে অনেকের। কিন্তু পথদুর্ঘটনায় আহদের চিকিৎসা না করিয়ে সেলফি তোলার ঘটনা দেশে এই প্রথমই বলা যায়। 

জনপ্রিয়

Back To Top