আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কেন্দ্র জানিয়েছে ভ্যাকসিন অপচয় চলবে না। সেই লক্ষ্যে আঁটোসাঁটো ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছিল। তারপরেও অজ্ঞানতার কারণে নষ্ট হল বহু কোভিড টিকা। ঘটনাস্থল বিজেপিশাসিত রাজ্য অসমের শিলচর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। সেখানে নষ্ট হল কোভিশিল্ডের এক হাজার ডোজ। যদিও কর্তৃপক্ষের সাফাই, যান্ত্রিক ত্রুটির জেরেই এই সমস্যা হয়েছে। 
কী ঘটেছিল? শিলচর মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের স্টোরেজ ইউনিটে ১০০ ভায়াল কোভিশিল্ডের হদিশ মেলে। যার মধ্যে কোভিশিল্ডের ১০০০ ডোজ ছিল। যেগুলি হিমাঙ্কের চেয়ে কম তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। ফলে ডোজগুলি আংশিকভাবে জমে যায়। কার্যত ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে দাঁড়ায় কোভিশিল্ড টিকা। উল্লেখ্য, এই কোভিড ভ্যাকসিন ২–৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করার কথা। সরকারিভাবে গাইডলাইন দিয়ে প্রতিটি হাসপাতালকে এই নিয়মের কথা জানানো হয়েছে। তাহলে কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা? জবাব দিতে গিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাফাই, ‘‌আইস লাইনড রেফ্রিজারেটরে যান্ত্রিক ত্রুটি রয়েছে। সাধারণত এর তাপমাত্রা ২–৮ ডিগ্রির মধ্যেই রাখা হয়। যদি কখনও এর তাপমাত্রা ২ ডিগ্রির নিচে নেমে যায়, তখন সঙ্গে সঙ্গে  আমাদের কাছে মেসেজ যায়। এবার আমাদের টিকাপ্রদানকারীদের কাছে এরকম কোনও মেসেজ আসেনি। হয়তো এটা যান্ত্রিক ত্রুটি।’‌ তাঁরা আরও জানিয়েছে, ‘‌ভ্যাকসিনগুলি রাতে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। রাতারাতি রেফ্রিজারেটরের তাপমাত্রা কমে গিয়ে এই বিপত্তি বাধে।’‌ ফলে তাঁরা সরকারের কাছে নতুন করে এক হাজার ডোজ কোভিশিল্ড চেয়েছে। অসমের স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে ওই হাসপাতালে আরও এক হাজার ডোজ কোভিশিল্ড পাঠানো হয়েছে। তবে কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। 

জনপ্রিয়

Back To Top