আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অতিমারী তো ঠেকাতেই পারল না। ওদিকে অর্থনীতিও মুখ থুবড়ে পড়েছে। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর। রবিবার লোকসভায় করোনা সংক্রান্ত ইস্যু নিয়ে আলোচনায় তিরুবন্তপুরমের সাংসদ বলেন, ‘রবিবারের ‌জনতা কার্ফুর জন্যেও তিন দিনের সময় দেওয়া হয়েছিল। যেদিন প্রত্যেকে ঘরেই থাকেন। তারপরের টানা লকডাউনের সিদ্ধান্ত একেবারে আচমকা এসেছে!‌ জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী মহাভারতের কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের প্রসঙ্গ টেনেছিলেন। বলেছিলেন, ১৮ দিনেই ওই যুদ্ধের সমাপ্তি হয়েছিল। একইভাবে আগামী ২১ দিনের মধ্যে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধজয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। আজ ছ’‌মাস পেরিয়ে গেছে। আক্রান্তের সংখ্যার বিচারে ভারত এখন বিশ্বে দ্বিতীয়। দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে রোজই রেকর্ড গড়ছে দেশ। অতিমারীর কামড়কে অস্বীকার করছি না আমরা। আমরা শুধু বলছি, কোনও প্রস্তুতিই ছিল না কেন্দ্রের তরফে!‌’‌ 
অর্থনীতি প্রসঙ্গে থারুর বলেন, ‘সংক্রমণ তো কমেইনি, উল্টে অর্থ ব্যবস্থার চাকাও স্তব্ধ হয়েছে। গত ৪১ বছরে এই প্রথম দেশের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনে এতবড় সঙ্কোচন দেখা গেল। বেকারত্বের চিত্রটা আরও ভয়ঙ্কর হচ্ছে দিনে দিনে। ছোট–মাঝারি সংস্থাগুলো একেবারে ধ্বংস হয়ে গেছে। ব্যবসা–বাণিজ্য ধ্বসে গেছে। ভবিষ্যতে ঘুরে দাঁড়ানোরও ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না।’‌  

জনপ্রিয়

Back To Top