আনলক দিল্লির চেহারা দেখে উদ্বিগ্ন হাইকোর্ট, সতর্ক করা হল কেজরি সরকার ও কেন্দ্রকে 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দিল্লিতে চলছে আনলক প্রক্রিয়া। সংক্রমণ একটু কমতেই দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকার দোকানপাট খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অধিকাংশ গণপরিবহণ চলছে। তবে নিয়মবিধি কার্যক্ষেত্রে দিল্লিবাসী মানছেন না। শপিং মলগুলিতে উপচে পড়ছে ভিড়। এবার তাই দিল্লি এবং কেন্দ্র সরকারকে সতর্ক করল দিল্লি হাইকোর্ট। আদালতের পর্যবেক্ষণ, আরও কঠোর করোনা বিধি না মানলে করোনার তৃতীয় ঢেউ আরও দ্রুত আসবে। 
দিল্লিতে গত সপ্তাহ থেকেই আনলক পর্ব শুরু হয়েছে। আর তারপর থেকেই বাজারঘাটে ভিড় ক্রমশ বাড়ছে। অনেকের মুখেই মাস্ক নেই। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংও মানা হচ্ছে না। আর তাই দেখে স্বতঃপ্রণোদিত অভিযোগ নেয় দিল্লি হাইকোর্ট। আদালতের দুই বিচারপতি নবীন চাওলা এবং আশা মেনন জানান, এইমসের এক চিকিৎসকের কাছে পাওয়া ছবি দেখে তাঁরা উদ্বিগ্ন। কোথাও ন্যূনতম বিধিনিষেধ মানা হচ্ছে না। বিচারপতিদের পর্যবেক্ষণ, করোনার দ্বিতীয় ধাক্কার চরম মূল্য দিল্লিবাসীকে দিতে হয়েছে। রাজধানীর এমন কোনও পরিবার নেই যারা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে এর প্রকোপে সমস্যায় পড়েনি। তারপরেও এভাবে নিয়মবিধি ভঙ্গ করা হলে তৃতীয় ঢেউ আরও দ্রুত আসবে। যা হতে দেওয়া যাবে না। আদালতের মতে, সরকারের উচিত আরও কঠোর বিধিনিষেধ কার্যকর করা। প্রয়োজনে ছোট দোকানদারদের সঙ্গে কথা বলে, বাজারঘাটের ফেরিওয়ালাদের সঙ্গে কথা বলে সচেতনতা বাড়ানো। দিল্লি সরকার এবং কেন্দ্র সরকারকে নোটিসও পাঠিয়েছে হাইকোর্ট। দ্রুত এ বিষয়ে স্টেটাস রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।