আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাজধানীর জায়গায় জায়গায় পোস্টার। ছবিতে বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর। পোস্টারে লেখা, ‘‌আপনারা কি এই মানুষটিকে দেখেছেন? ওঁকে শেষ দেখা গিয়েছিল ইন্দোরে জিলিপি খেতে।’ সেই পোস্টারের ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। পূর্ব দিল্লির বিজেপি সাংসদ তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরকে দিল্লি দূষণ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে অনুপস্থিত থাকার কারণে এ ভাবেই বিঁধেছে আম আদমি পার্টি। পূর্ব দিল্লির বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে সরব হয় কেজরিওয়ালের দল। দলের পক্ষ থেকে টুইটে লেখা হয়, ‘দিল্লি দম আটকে মরছে আর গৌতম গম্ভীর ইন্দোরে মজা করছেন। ওঁর উচিত ছিল দিল্লিতে এসে দূষণ নিয়ে বৈঠকে হাজির থাকা।’
রাজধানীর দূষণ পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তা ক্রমশই বাড়ছে। দিওয়ালির পর থেকে দিল্লির বাতাসের মান অতি বিপজ্জনক হতে শুরু করেছে। কোনও কোনও জায়গায় বাতাসের গুণমান সূচক ৫০০ পেরিয়ে গিয়েছে। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কোনও হেলদোল নেই নেতাদের। দিল্লি দূষণ নিয়ে সম্প্রতি সংসদের স্থায়ী কমিটির বৈঠক ডাকা হয়। গত ৮ নভেম্বর বৈঠকে হাজির থাকার জন্য অনুরোধ করে লোকসভার সেক্রেটারিয়েট থেকে নোটিস পাঠানো হয় স্থায়ী কমিটির ২৯ জনকে। অথচ দেখা যায়, বৈঠকে ২৫ জনই গরহাজির। ওই বৈঠকে দিল্লি থেকে একজন সাংসদকেই ডাকা হয়েছিল। তিনি হলেন গৌতম গম্ভীর। তিনিও হাজির ছিলেন না ওই বৈঠকে। এমনকি মথুরার বিজেপি সাংসদ হেমা মালিনীকেও ডাকা হয়েছিল ওই বৈঠকে। তিনিও হাজির ছিলেন না। দিল্লির দূষণ নিয়ন্ত্রন সংক্রান্ত জরুরি বৈঠকে না গিয়ে বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর পৌঁছে গিয়েছিলেন ইন্দোরে। ভারত–বাংলাদেশের ম্যাচে ধারাভাষ্য দিতে। এমনকি তাঁকে ইন্দোরের রাস্তায় জিলিপি খেতেও দেখা গিয়েছে। গৌতম এবং ভিভিএস লক্ষ্মণের জিলিপি খাওয়ার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরই শুরু হয় বিতর্ক। বিজেপি সাংসদের এই ‘‌কাণ্ডজ্ঞানহীন’‌ কাজের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড়ও উঠেছে।   

জনপ্রিয়

Back To Top