আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌‌দেশে হু হু করে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। আক্রান্তের সংখ্যা রোজ নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে। তবে ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। পরিবর্ত হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে রেমডিসিভির, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কিংবা ডেক্সামেথোসিন। তবে এদেশে কিছু কিছু ক্ষেত্রে সঙ্কটজনক করোনা রোগীদের উপর ব্যবহার করা হচ্ছে প্লাজমা থেরাপি। আর এই থেরাপির জন্য প্লাজমা দান করতে এগিয়ে এসেছেন দেশের সেনা জওয়ানরাও। জানা গিয়েছে, আধা সামরিক বাহিনীর অনেক জওয়ানই করোনার থেকে সুস্থ হওয়ার পর প্লাজমা থেরাপিতে সাহায্যার্থে নিজেদের প্লাজমা দান করেছে। উদ্দেশ্য একটাই, ‘‌যদি কারোর প্রাণ বাঁচানো যায়।’‌
সেরকমই একজন সিআরপিএফ–এর হেড কনস্টেবল মনজিৎ সিং। সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হলেও পরবর্তীতে সুস্থ হয়ে ওঠেন। এরপর গত ২৭ জুন নিজের প্লাজমাও দান করেন। এই প্রসঙ্গে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি জানতে পারি দিল্লির স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে এক মহিলার অবস্থা সঙ্কটজনক। তিনি ভেন্টিলেশনে রয়েছেন। এরপরই ২৭ জুন গিয়ে নিজের প্লাজমা দান করে আসি।’ এর সঙ্গেই তিনি জানান, ‘‌গত ২৯ এপ্রিল আমার শরীরে করোনা ধরা পড়ে। কিন্তু আমি ভেঙে পড়িনি। নিজের মনকে শান্ত রেখেছি। ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করেছি এবং চিকিৎসকের পরামর্শও মেনে চলেছি।’ আরেক জওয়ান গনেশ কুমার এরপরই যোগ করেন, ‘‌যদি কারোর প্রাণ বাঁচানো যায়, তাহলে কেন নয়?‌’‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top