আজকাল ওয়েবডেস্ক: একটা সময় বলা হত, যাঁরা সর্বক্ষণ মোবাইল ফোনে সোশ্যাল মিডিয়ায়, কিংবা ভিডিও গেম খেলে সময় কাটান, তাঁরা ভীষণ একাকীত্বে ভোগেন। অনেকেই আবার বলতেন তাঁরা ভীষণ অসামাজিক। কিন্তু সাম্প্রতিক গবেষণা ঠিক উল্টো কথা বলছে। লন্ডনের জাজেক্স নামক গ্রুপের সদস্যরা সারা বিশ্বের ২০০০ ভিডিও-গেমারের সঙ্গে এই গবেষণার জন্য কথা বলেছেন। তার পরেই তাঁরা জানাচ্ছেন, যুগের সঙ্গে বদলে গেছে জীবনযাত্রাও। আগে একা খেললেও, এখন প্রায় সকলেই একটা দল তৈরি করে খেলেন। ফলে খেলার মাঝেও সামাজিকতা বজায় থাকে তাঁদের মধ্যে। শুধু তাই নয়, লকডাউনের সময় সারাবিশ্বে ভিডিও-গেম খেলার প্রবণতা কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। ৭১ শতাংশ মানুষ জানাচ্ছেন, তাঁরা বন্ধুবান্ধব কিংবা পরিচিতদের সঙ্গেই খেলেছেন। ৩৬ শতাংশ জানাচ্ছেন তাঁরা অনলাইনেই দল বানিয়ে গেম খেলেন। এমনকি মধ্যরাত, ভোররাত নয়, সন্ধের দিকে গেম খেলার প্রবণতাই সবচেয়ে বেশি। 

শুধু তাই নয়, অনেকের ধারণা গেমাররা নাকি ফাস্টফুড, তৈলাক্ত, কোল্ডড্রিঙ্কস খাওয়ার প্রতিই ঝোঁকেন! এই ধারণাও ভুল বলে জানাচ্ছেন তাঁরা। আজকাল নাকি বেশিরভাগ ভিডিও-গেমার বাড়িতে তৈরি খাবার, জল, চা, কফি এগুলোই খান। অনেকে আবার না খেয়েই খেলায় মনোনিবেশ করেন। আর মাত্র ১০ শতাংশ মানুষ জানাচ্ছেন তাঁরা পিৎজা, বার্গার, পেস্ট্রি খেয়েই সময় কাটান। 

জনপ্রিয়

Back To Top