আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ডেটিং অ্যাপে যারা নিজেদের পছন্দের সঙ্গী খুঁজে পেয়েছেন সেই সম্পর্ক বেশি দীর্ঘস্থায়ী হয়েছে। আগেকার তথ্যকে উল্টে দিয়ে এই দাবিই করেছে সুইৎজারল্যান্ডের একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষা। কারণ হিসাবে বলা হয়েছে, এর ফলে দুই মানুষের মধ্যে ভৌগলিক সম্পর্কই শুধু নয়, শিক্ষা এবং সামাজিক আদানপ্রদানও অনেক বেড়ে যায়।
বিভিন্ন দেশের যুবক–যুবতীর মধ্যের এই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। তাতে দেখা যায় যাঁরা ডেটিং অ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ করেছেন, তাঁদের থেকে যাঁরা ডিজিটাল পরিবেশে মেলামেশা করেননি তাঁদের সম্পর্কের স্থায়ীত্ব এবং গভীরতা অনেক বেশি। সনাতনী ডেটিং অ্যাপের থেকে অনেকটাই ভিন্ন আধুনিক এই ডেটিং অ্যাপ। পুরনো অ্যাপের মতো এখানে ইউজার প্রোফাইল বিস্তারিতভাবে দেওয়া নেই, বরং রেটিং ফোটো এবং সোয়াইপ রিভিউ সিস্টেম রয়েছে। এই নতুন ডেটিং অ্যাপে দুজন মানুষ নিজেদের সঙ্গীর মানসিকতার সঙ্গে আগে থেকেই অনেক ভালোভাবে পরিচিত হয়ে যান। ফলে পরস্পরের মধ্যে মানসিক সন্তুষ্টি থাকে।  স্বাভাবিকভাবে যোগাযোগ হওয়া দুই নারী–পুরুষের বদলে এই অ্যাপের মাধ্যমে মিলিত হওয়া মহিলাদের সন্তানের কামনাও প্রবল হয়। পরস্পরকে আরও বেশি এবং আরও ভালো করে জানার আকাঙ্খা তৈরি হওয়ায় সম্পর্ক আরও মধুর হয়ে ওঠে। বলছেন গবেষকরা।  

জনপ্রিয়

Back To Top