আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ স্মার্টফোনের ব্যবহার অত্যধিক বেড়ে গিয়েছে। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ প্রেমীদের সংখ্যাও। যা মানুষের ব্যক্তিগত জীবনেও প্রভাব ফেলছে। স্ত্রী ফেসবুকে এতটাই মগ্ন যে স্বামীর জন্য রান্না করতেই ভুলে গেলেন। রাগে স্বামী মেরেই ফেললেন স্ত্রীকে। কিছুদিন আগের এই ঘটনা শোরগোল ফেলে দিয়েছিল। বিয়ের বিজ্ঞাপনেও দেখা যাচ্ছে অনেক পাত্রই চাইছেন এমন পাত্রী যাদের ফেসবুক–হোয়াটসঅ্যাপ প্রীতি থাকবে না। সোস্যাল মিডিয়া এতটাই প্রভাব ফেলেছে ব্যক্তিগত জীবনে। সম্প্রতি এক রিপোর্টে জানা গেছে দেশের জনসংখ্যার ৬৫ শতাংশই ভালবাসার মানুষের চেয়ে স্মার্টফোনের সঙ্গেই বেশি সময় কাটাচ্ছেন। সমস্যাটা ভারতেই সবচেয়ে বেশি। স্মার্টফোনের সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবনের ভারসাম্য বজায় রাখতে পারছেন না দেশবাসী। সমীক্ষা জানিয়েছে বিশ্বের জনসংখ্যার ৫০ শতাংশ মানুষ একাধিকবার ফোন চেক করেন। অন্তত ৪৪ শতাংশ বারেবারে ফোন চেক করেন। ভারতের ক্ষেত্রে সংখ্যাটা অনেক বেশি। ৬৫ শতাংশ মানুষ একাধিকবার ফোন চেক করেন। ঘনঘন করেন ৫৭ শতাংশ। অবশ্য তরুণদের মধ্যেই স্মার্টফোন প্রীতি সবচেয়ে বেশি। ১৯৯০ থেকে ২০০০ সালের মধ্যে যারা জন্মেছেন তাদের অন্তত ৪৪ শতাংশ জানিয়েছে যে স্মার্টফোন নিয়েই তাদের সময় কেটে যায়। ৫৩ শতাংশ ভারতীয় বলেছেন স্মার্টফোনের সঙ্গে বেশি সময় না কাটালেই হয়ত ভাল হত। কিন্তু সমীক্ষা যে বলছে সম্পূর্ণ অন্য কথা। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top