আজকালের প্রতিবেদন: ভাল‌মন্দ খাবার দেখলেই জিভে জল?‌ ডায়েট ভুলে খেয়েও ফেলেন মাঝে মাঝে?‌ ‌পরে অপরাধবোধে ভুগতে হয়?‌ এর থেকে রক্ষা পাওয়ার নতুন রাস্তা দেখাল ‘‌বিঞ্জ বে ফিকর’‌। মঙ্গলবার কলকাতায় উদ্বোধন হল এই নতুন ‘‌ভার্চুয়াল রেস্তোরঁা’র‌। যার সমস্ত খাবারই শুগার ও বাটার–‌ফ্রি। রয়েছে ভেগান, গ্লুটেন–‌ফ্রি, ল্যাকটোজ–‌ফ্রি খাবারের প্রচুর পদ। যঁারা খেতে ভালবাসেন কিন্তু মোটা হওয়ার ভয়ে খাওয়ায় লাগাম টেনেছেন, তঁাদের জন্য আদর্শ ওই সব খাবার। এখানকার সব খাবারই পুষ্টিবিদরা যাচাই করেছেন। মেনুতে রয়েছে সুস্বাদু অথচ স্বাস্থ্যকর বিভিন্ন পদ। গ্লুটেন–‌ফ্রি পিৎজা, বার্গার, স্যান্ডউইচ, ব্রাউন রাইস, ব্রাউন বিরিয়ানি, গার্লিক রাইস, মাল্টিগ্রেইন রুটি ইত্যাদি। সব পদই হাই প্রোটিন, লো–‌ক্যালোরির। আপাতত ‘‌সুইগি’‌ ও ‘‌জোম্যাটো’‌–তে পাওয়া যাবে ‘‌বিঞ্জ বে ফিকর’–এর খাবারদাবার।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধনে এসেছিলেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ। তঁার সঙ্গে ছিল ‘‌আনন্দঘর’ হোমের শিশুরা।‌ তিনি জানালেন, ভাল স্বাস্থ্যের ৭০ শতাংশই নির্ভর করে খাবারের ওপর। যে–‌কারণে অনেক সময় ইচ্ছে হলেও পছন্দের খাবার খাওয়া হয় না। কিন্তু এখানকার প্রতিটি পদই স্বাস্থ্যকর, সুস্বাদু।  সংস্থার কর্ণধার অনিশা মোহতা জানান, এখন কলকাতার বেশির ভাগ মানুষই স্বাস্থ্য–সচেতন। বেশি তেল–‌মশলা ও ফ্যাট চুল আর ত্বকের পক্ষেও ক্ষতিকারক। তাই স্বাস্থ্য–‌সচেতনদের কথা ভেবেই এই উদ্যোগ। অনুষ্ঠানে খাবারের পুষ্টি ও স্বাদের বিষয়ে বলেন পুষ্টিবিদ অনিন্দিতা রায় চক্রবর্তী।           ছবি:‌ বিজয় সেনগুপ্ত

জনপ্রিয়

Back To Top