আজকাল ওয়েবডেস্ক: লিপস্টিকের প্রতি একটা দুর্বলতা রয়েছে?‌ মাঝেমাঝে আর কিছু না সাজলেও, শুধু ঠোঁটে একটা রং আর পছন্দ মতো একটা পোশাক। এই সাজটিই আপনার নতুন স্টাইল স্টেটমেন্ট। কিন্তু হায়!‌ করোনা পরিস্থিতিতে লিপস্টিক কেনার মতো সাহস আপনার হচ্ছে না। দোকানে যাওয়া, এক এক করে লিপস্টিক মেখে মেখে পরখ করে দেখা, তারপর কেনা। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এই পরিমাণ স্পর্শের স্পর্ধা আপনার নেই। কী করবেন? অনলাইনে অর্ডার করতে একটি দ্বিধাবোধ হচ্ছে তাই তো?‌ কোন রং আপনার মুখে মানাবে, সেটা কেমন করে বুঝবেন!‌ তবে অভিযোজন বলে একটা তত্ত্ব আছে না?‌ সেই তত্ত্বই এখন সব ক্ষেত্রে কার্যকর। পরিস্থিতর সঙ্গে মানিয়ে নতুন নতুন পদ্ধতি ঠিক তৈরি হয়ে যাচ্ছে। অধিকাংশ প্রসাধনী সংস্থা‌ তাঁদের পণ্য বিক্রির জন্য অগমেন্টেড রিয়্যালিটি প্রযুক্তির প্রয়োগ শুরু করেছে। কী তার সুবিধা?‌ অনলাইনে লিপস্টিকের মতো প্রসাধনী দ্রব্য কেনার আগে আপনি নিজের ঠোঁটে তা প্রয়োগ করে দেখে নিতে পারবেন। একদম সঠিক রঙটাই আপনি দেখতে পারবেন নিজের মুখে। পরখ করুন একের পর এক। তারপর যেটা আপনাকে সবথেকে বেশি মানাচ্ছে, সেটি কিনে নিন। শুধু লিপস্টিক কেন, হেয়ার কলর বা মেকআপের বিভিন্ন দ্রব্য। দোকানে গিয়ে আপনাকে আর মেখে পরখ করতে হবে না। সামাজিক দূরত্ব এবং স্পর্শহীন সময়ে এর থেকে সুবিধাজনক ও নিরাপদ কেনাকাটি আর কীই বা হতে পারে। 
‘‌ল’‌রিয়েল ইন্ডিয়া’‌ সংস্থার চিফ ডিজিটাল অফিসার অনিল চিল্লা জানালেন, ‘‌এখন যে স্পর্শহীন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে গ্রাহকেরা পুরনো কেনাকাটার স্বভাবটি নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছেন। অনলাইনে কেনাকাটার পরিমাণ আগের থেকে অনেক বেড়েছে। আগে বেশিরভাগ গ্রাহকই দোকানে গিয়ে পরখ করে কিনতে পছন্দ করতেন। মহামারীর পরে ১৮ শতাংশ মানুষ এই পদ্ধতিতেই অভ্যস্ত হয়ে পড়েছেন।’‌   
বোস্টন কনসাল্টিং গ্রুপের সাহায্যে ফেসবুক ইন্ডিয়া একটি সমীক্ষা করেছে। বিষয়, এই মহামারী কীভাবে গ্রাহকদের কেনাকাটার ওপরে প্রভাব ফেলেছে। প্রসাধনী দ্রব্যের ক্ষেত্রে অনলাইন ক্রেতার সংখ্যা ১.৩৩ গুণ বেড়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কমপক্ষে ৫১ শতাংশ গ্রাহক আগামী ছ’‌মাসে অনলাইনেই কেনাকাটা করবেন। যাঁদের মধ্যে ৪৩ শতাংশ মানুষ কেবল প্রসাধনী দ্রব্যের কেনাকাটি করবেন অনলাইনে।
অনলাইন কসমেটিকস ব্র্যান্ড ‘‌সুগার’‌–এর মতে, অগমেন্টেড রিয়্যালিটি প্রয়োগের ফলে গ্রাহকদের কাছে প্রসাধনী কেনাকাটির গোটা বিষয়টিই আরও মজাদার হয়ে উঠেছে। ‘‌সুগার কসমেটিকস’‌–এর সিইও ভিনিতা সিং বললেন, ‘‌অনলাইনে কেনাকাটির ফলে, গ্রাহকদের কাছে কেনাকাটিটা সহজ হয়ে উঠেছে। লিপস্টিকের কোন শেডটি তাঁর জন্য উপযুক্ত, সেটা জানার জন্য একের পর এক শেড পরে দেখতে হত। আর তার মানেই, পরা এবং মুছে ফেলায় একটাআ বড় সময় চলে যেত। এক্ষেত্রে সেই অসুবিধাটি নেই।’
‘‌গ্রাফিক্সস্টোরি’ একটি প্রযুক্তি–চালিত বিজ্ঞাপন স্টুডিও যা ‌বিভিন্ন ব্র্যান্ডকে অগমেন্টেড রিয়্যালিটি পরিষেবা সরবরাহ করে। সংস্থার বিপণন বিভাগের প্রধান অর্ণব সামন্ত জানালেন, ‘‌অগমেন্টেড রিয়্যালিটির সাহায্যে যাঁরা কেনাকাটি করেন, তাঁদের বাড়িটিকে ভার্চুয়াল ল্যান্ডস্কেপে রূপান্তর করা হয়। যাতে তাঁদের মোবাইল ডিভাইসটি ত্রিডি–র কাজ করতে পারে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top