আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌ডেটে যাওয়া বা বিয়ে ছাড়া ভারতীয় পুরুষদের খুব একটা গ্ল্যামারস লাগে না। কিন্তু এবার সেই রীতি বদলাতে চলেছে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে নিয়েলসনের রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতে পুরুষ–প্রসাধনীর বাজার ৫ হাজার কোটি টাকা বেড়েছে এবং তা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। তবে তা মেয়েদের মন জয় করতে নয়, বরং কাজের ক্ষেত্রে উন্নতির জন্যই পুরুষরা সম্প্রতি নিজেদের দিকে খেয়াল রাখতে শুরু করেছেন। রূপ–চর্চায় মন দিয়েছেন পুরুষরা।
নিয়েলসন ভারতীয় প্রসাধনের বাজার সমীক্ষা করে জানায়, ‘‌প্রসাধন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে পুরুষদের দু’‌টি দিক কাজ করে।

প্রথমত পুরুষদের এতে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পায় এবং দ্বিতীয়ত নিজের গ্ল্যামার বাড়লে তা কাজের ক্ষেত্রে অন্য পুরুষ কর্মীদের চেয়ে তাঁকে অনেক বেশি এগিয়ে রাখে। মূলত কাজের উন্নয়নের জন্যই পুরুষরা নিজেদের রূপচর্চার প্রতি নজর দিয়েছেন। মহিলাদের মন জয় করতে নয়।’‌ এ দেশের শহুরে ছেলেদের আয়, নতুন যুগের সঙ্গে এগিয়ে চলার তাগিদ এবং নিজেকে পারিপার্শ্বিক জীবনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার কারণেই ছেলেরা নিজেদের জন্য তৈরি হওয়া প্রসাধনী দ্রব্য কেনার ওপর মনোনিবেশ করছে। 
নিয়েলসন জানায়, এমন সময়ও গেছে যেখানে পুরুষরা মহিলাদের প্রসাধনী দিয়েই নিজের রূপকে বাড়িয়ে তোলার চেষ্টা করত।

কিন্তু গত এক দশকে এই রীতিটা অনেকটাই বদলে গিয়েছে। পুরুষরা এখন তাঁদের জন্য তৈরি করা প্রসাধনী দ্রব্যই ব্যবহার করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। শেভিং জেল, ডিওড্রেন্ট এবং রেজর এই তিনটি জিনিস বাদ দিয়ে এখন পুরুষরা তাঁদের জন্য তৈরি শ্যাম্পু, ফেয়ারনেস ক্রিম এমনকী বেয়ার্ড ক্রিমও কিনছেন রমরমিয়ে। অথচ একদশক আগেও পুরুষরা নিজেদের জন্য ফেসওয়াশ এবং ক্রিম পর্যন্ত কিনতেন না।  

জনপ্রিয়

Back To Top