Monsoon Health Tips: বর্ষা মানেই সর্দিকাশি, পেটের গণ্ডগোল, কোন কোন খাবার এড়িয়ে চলবেন?

আজকাল ওয়েবডেস্ক: বর্ষাকাল শুনতে যতটা রোমান্টিক লাগে, ততটা কিন্তু সুখকর নয় শরীর, স্বাস্থ্যের জন্য।

একাধিক রোগব্যাধির সমস্যায় জেরবার হন সকলেই। বিশেষত সর্দিকাশি, জ্বর এবং পেটের সমস্যা। সাময়িকভাবে ওষুধ খেলে অসুখ থেকে রেহাই মিললেও, সবসময় ওষুধ নির্ভর হয়ে পড়লে স্বাস্থ্যেরই ক্ষতি। তাই বর্ষার সময় ডায়েটে পরিবর্তন আনতে বলছেন পুষ্টিবিদরা। রোগব্যাধির সমস্যা এড়াতে কয়েকটি খাবারও এই সময় এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা। 

 

যেমন, 

১. পালং শাক, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ক্যাপসিকাম, এই জাতীয় সবুজ সবজি এড়িয়ে চলুন। বর্ষায় এই ধরনের সবজি চাষের জন্য নানারকম কীটনাশক ব্যবহার করা হয়। অত্যধিক খেলে ব্যকটেরিয়ার সংক্রমণ হতে পারে। 

২. এই ঋতুতে বেগুন খেতেও নিষেধ করেছেন পুষ্টিবিদরা। বর্ষায় কীটপতঙ্গ দূর করতে বেগুন চাষের সময় অ্যালকালয়েড নামক কীটনাশক ব্যবহার করা হয়। অত্যধিক পরিমাণে খেলে ত্বকে ঘামাচি, বমি বমি ভাব এবং ত্বকে ফুসকুড়ির সমস্যা দেখা দিতে পারে। 

৩. অনেকেই মাশরুম খেতে ভালবাসেন। গরম স্যুপ হোক বা তরকারি, মাশরুমের পদ অনেকেরই পছন্দ। কিন্তু বর্ষায় মাশরুম খেতে নিষেধ করছেন পুষ্টিবিদরা। এতে পেটের গোলমাল দেখা দিতে পারে। 

৪. সামুদ্রিক যেকোনও মাছ, চিংড়ি বর্ষায় না খাওয়াই উচিত। এতে শরীর সুস্থ থাকবে। 

৫. রাস্তার ধারের তৈলাক্ত, মশলাদার যেকোনও খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এর থেকেও ব্যকটেরিয়ার সংক্রমণ হতে পারে। 

৬. তেষ্টা মেটাতে নরম পানীয়, রঙিন পানীয় বেশি না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। এতে সর্দি-কাশি, ঠান্ডা লাগার সমস্যা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। আবার পেটের গোলমাল হওয়ারও ঝুঁকি থাকবে না। 

আকর্ষণীয় খবর