Winter: ঠান্ডা পড়েছে বলে চা–কফি বেশি খাচ্ছেন?‌ ক্ষতি হতে পারে শরীরের

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জানুয়ারি মাস।

জমিয়ে ঠান্ডা। এর মাঝে আবার বার দুয়েক বৃষ্টি–পর্বও হয়ে গেল। মোদ্দা কথা বেশ শীতের আমেজ বাতাসে। গায়ে লেপ আর হাতে চা বা কফির কাপ। এটাই তো এখন ঘর ঘরের কাহিনি। তাই না!‌ কিন্তু শীত থেকে বাঁচতে বেশি চা বা কফি খেয়ে ফেলছেন না তো?‌ ভুলেও করবেন না। ক্ষতি হবে শরীরের। 
কী কী সমস্যা হতে পারে?‌ পুষ্টিবিদ অর্পিতা রায়চৌধুরির মতে, শীত হোক বা গরম, চা–কফি খাওয়ায় এমনিতে কোনও বাধা নেই। তবে কোনওটাই বেশি খাওয়া ঠিক নয়। খেলে কী হতে পারে জানেন?‌
• একাধিকবার চা–কফি পান করলে খিদে কমে যায়। 
• চা এবং কফিতে থাকে ক্যাফেইন। এই ক্যাফেইন শরীরে আয়রন শোষণে বাধা দেয়।
• গর্ভবতীদের চা, কফি কম খাওয়াই ভালো। শরীরে আয়রনের ঘাটতি হতে পারে।
• বারবার দুধ দিয়ে চা খেলে যাঁদের গ্যাসট্রাইটিস রয়েছে, তাঁদের সমস্যা বাড়তে পারে। 
• অনেক সময় বাওয়েল ক্লিয়ারে সমস্যা হয়। অর্থাৎ পেট পরিষ্কার হয় না। তবে সবার ক্ষেত্রে নয়। কারও আবার চা–কফি খেলে হয়তো মল পরিষ্কার হয়। 
পুষ্টিবিদ অর্পিতা বললেন, শীতে গরম কিছু খেতে ইচ্ছে করলে গ্রিন টি খাওয়া যেতে পারে। এটি অ্যান্টি অক্সিডেন্টের কাজ করে। প্রির‌্যাডিকেলগুলোকে নষ্ট করে। পাশাপাশি মুরসুমি রঙিন ফল এবং সবজি খাওয়ার ওপরও জোর দিলেন তিনি। জানালেন, এসবে নিউট্রিয়েন্টস থাকে। সেই সঙ্গে খাবারে প্রোটিনের পরিমাণ বাড়াতে হবে। 
আর একটা বিষয়ে সাবধান করলেন পুষ্টিবিদ। বললেন, এ সময় জল খাওয়া কম হয়। কারণ তেষ্টা পায় না। এর ফলে শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যায়। এরফলে মাস্‌ল ক্র‌্যাম্প, যাকে কথ্য ভাষায় বলে পেশীতে টান, তা হতে পারে। তাই প্রচুর জল পান করতে ভুলবেন না। সঙ্গে স্যুপ, ডাবের জল, ফলের রসও খান। ভালো থাকবে শরীর।  

আকর্ষণীয় খবর