Mangoes: বাজারের পাকা আম দেখে লোভ সামলাতে পারছেন না? কৃত্রিমভাবে পাকানো ফল থেকে সাবধান

আজকাল ওয়েবডেস্ক: আমের মরশুম চলে এলেও পাকা আমের সঠিক সময় কিন্তু এখনও আসেনি।

যদিও ইতিমধ্যেই বাজারে ছেয়ে গেছে টুকটুকে পাকা আম। যা দেখে সত্যিই লোভ সামলানো মুশকিল। নিখুঁত আমের বাইরের রঙ দেখেই তা খেতে মন চাইছে আট থেকে আশি সকলের। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মরশুমের আগে এই পাকা আম অতিরিক্ত খেলে শরীরের বিপদ বাড়তে পারে। 

 

কারণ, এগুলো প্রাকৃতিকভাবে পাকা আম নয়। কৃত্রিমভাবে পাকানো হয় এগুলো। সময়ের আগেই চড়া দামে মানুষের কাছে বিক্রি করতেই কৃত্রিমভাবে পাকানো হয় আম। বিশেষত এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় ক্যালশিয়াম কার্বাইড। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই ধরনের রাসায়নিক পদার্থ শরীরে অতিরিক্ত প্রবেশ করলে ক্যানসার হতে পারে। কীভাবে বুঝবেন আম কৃত্রিমভাবে পাকানো? 

১. আম খুব মিষ্টি জাতীয় ফল। কিন্তু কার্বাইড দেওয়া আম মিষ্টি হয় না। খেতে সুস্বাদুও হয় না। 

২. কৃত্রিমভাবে পাকানো আমের শাঁস এতটাই শক্ত হয়, যে খাওয়ার পর দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকে। খাওয়ার পর মুখেও জ্বালা করতে পারে! 

৩. প্রাকৃতিকভাবে পাকা আমের শাঁস উজ্জ্বল হলুদ রঙের হয়। কিন্তু কার্বাইড দেওয়া আমের শাঁস হলুদ রঙের হয় না। 

৪. কৃত্রিমভাবে পাকানো আমের রঙ তুলনামূলক অনেক বেশি উজ্জ্বল হলুদ রঙের দেখায়। 

৫. আমে কার্বাইড মেশানো থাকলে, ফলের গায়ে সবুজাভ ছোপ থাকবেই। 

আকর্ষণীয় খবর