আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গাওয়া ঘিয়ে ভাজা, পুরভরা পরোটা খেতে কার না ভালো লাগে। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারিকা হোক বা কচ্ছ থেকে কাজিরাঙা, ভারতীয়দের পরোটাপ্রীতি বিশ্ববিদিত। আর তা যদি হয় কোনও জনপ্রিয় রেস্তোরাঁর, তাহলে তো কথাই নেই। স্বাদগন্ধেই অর্ধেক ভোজন পূর্ণ।
ভারতীয়দের এই পরোটাপ্রীতির কথা মাথায় রেখেই ১০ বছর আগে পাঞ্জাবের রোহতকের কয়েকটি রেস্তোরাঁ এক নতুন ধরনের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল ভোজনরসিকদের কাছে। তা হল, যদি ৫০ মিনিটের মধ্যে কেউ তিনটি পরোটা খেয়ে ফেলতে পারেন, তাহলে আজীবন ওই রেস্তোরাঁয় বিনামূল্যে তিনি খাওয়াদাওয়া করতে পারবেন। এর সঙ্গেই আছে বিজয়ীদের জন্য নগদ ৫১০০ টাকা পুরস্কার বা এক লক্ষ টাকার জীবনবিমা।
১০ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগোয়া রোহতকের ওই রেস্তোরাঁগুলি পুরভরা বড় পরোটার জন্যই বরাবর জনপ্রিয়। প্রতিটি পরোটার ওজন প্রায় ১.‌২ কেজি। দাম ১৯০–৩৫০ টাকা পর্যন্ত। প্রায় ৫০ রকমের পুরভরা পরোটা পাওয়া যায় রেস্তোরাঁগুলিতে। রেস্তোরাঁর বাইরে ব্যানারে ঘোষণা করা রয়েছে চ্যালেঞ্জের কথা। কিন্তু, ‘‌তপস্যা পরোটা’‌ নামে এমনই একটি রেস্তোরাঁর মালিক মুকেশ গেহলট জানালেন, ‘‌গত ১০ বছরে মাত্র দুজন ব্যক্তিই ওই চ্যালেঞ্জ জিতেছেন। মধ্য প্রদেশের বাসিন্দা মহারাজ সিং এবং স্থানীয় একটি গ্রামের বাসিন্দা অশ্বিনী। মহারাজ বছরে এক–দুবার এলেও অশ্বিনী প্রায়ই আসেন বিনামূল্যে খাবারের মজা নিতে। প্রায় প্রতিদিনই তিন থেকে চারজন চ্যালেঞ্জ নিতে নামলেও বেশিরভাগ মানুষই এক থেকে দুটি পরোটার বেশি খেতে পারেন না।’‌ জাতীয় সড়ক লাগোয়া রেস্তোরাঁগুলির বেশিরভাগ গ্রাহকই অবশ্য সাধারণত, পর্যটক বা পথচলতি মানুষ। 

জনপ্রিয়

Back To Top