আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিধানসভা ভোটের কাজ থেকে অব্যাহতি চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের সংগঠন। বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসুর এজলাসে মামলাটি দায়ের হয়েছে। আগামী ১ মার্চ এ নিয়ে প্রথম শুনানি হবে বলে খবর।
রাজ্যে বিধানসভা ভোটের দিনক্ষণ এখনও স্থির হয়নি। কিন্তু ইতিমধ্যেই ভোটকর্মীদের প্রশিক্ষণ শুরু হয়ে গিয়েছে। বুধবার প্রথম দফার প্রশিক্ষণেই ভোটকর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। তাঁদের টিফিনের জন্য বরাদ্দ টাকা না পাওয়ায় সিউড়িতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন কর্মীদের একাংশ। ক্ষোভ সামলাতে প্রশাসন আশ্বাস দিয়েছে, বরাদ্দ টাকা কর্মীদের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এসবের আগেই অবশ্য সরকারি কর্মীদের একটা বড় অংশ বিশেষত শিক্ষক–অশিক্ষক কর্মীরা অনেকেই এ বছর ভোটের কাজে যেতে তেমন আগ্রহী নন।
নানাভাবে তাঁরা নিজেদের অনিচ্ছার কথা জানিয়েছেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু তাতে বিশেষ সুরাহা হয়নি। বুধবার তাই সরাসরি কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ও মাদ্রাসাগুলির প্রধান শিক্ষক–শিক্ষিকাদের সংগঠন। তাঁদের অভিযোগ, প্রধান শিক্ষকদের দায়িত্ব অনেক বেশি। একদিকে, স্কুলের যাবতীয় দায়িত্ব সামলানো, অন্যদিকে, যে সব স্কুল পোলিং স্টেশন হবে, সেখানেও নানা দায়িত্ব থাকে তাঁদের উপর। তাই এ বছর ভোটের কাজ থেকে অব্যাহতি চান রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকরা। তাঁদের আশা, আইনের পথেই তাঁদের আবেদন পূরণ হবে।

জনপ্রিয়

Back To Top