আজকাল ওয়েবডেস্ক: ভিটামিন ট্যাবলেট খেয়েই ফিট বিশ্বাস, শ্রুতি, স্নেহাশিস, পায়েল। না এরা কিন্তু কোনও শিশু বা মানুষ না। এরা আলিপুর চিড়িয়াখানার একদল বাঘ-সিংহ। দেশে সিংহের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। আর তাই এবার থেকে চিকিৎসকদের নির্দেশে দু'বেলা করে ভিটামিন ওষুধ খাচ্ছে ওরা। তার সঙ্গে করোনার এই পরিস্থিতিতে  মাংসাশী প্রাণীদের খাবারে মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে বাড়তি মিনারেলস। ওদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোই লক্ষ্য এখন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের‌।

এই মাসের শুরুতেই হায়দ্রাবাদ চিড়িয়াখানার ৮ টি সিংহের করোনা ধরা পড়ে। এরপর জয়পুরেও কোভিড আক্রান্ত হয়েছে সিংহ। এই খবরে উদ্বেগ বেড়েছে রাজ্যের। তবে স্বস্তির খবর, আলিপুর-সহ রাজ্যের অন্য কোনও চিড়িয়াখানার কোনও পশুর মধ্যে সংক্রমণ মেলেনি। তবে পরিস্থিতির কথা বিচার করে কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছে না চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। আলিপুর চিড়িয়াখানার অধিকর্তা আশিস সামন্ত জানান, এখানে সব জীবজন্তুই সুস্থ রয়েছে। প্রতিদিন বাঘ, সিংহ-সহ অন্যান্য সমস্ত পশু প্রাণীদের খাঁচা সংক্রমণ মুক্ত করতে স্প্রে করা হচ্ছে। সঙ্গে তিনি বলেন, চিকিৎসকদের পরামর্শে এখন দু’বেলা ভিটামিন ওষুধ দেওয়া হচ্ছে বাঘ-সিংহ থেকে অন্যান্য পশুদের। তবে চিড়িয়াখানা দর্শনার্থীদের জন্য সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেওয়ায় বাইরে থেকে তাদের সংক্রমণের ভয়ও নেই। খাঁচার কিপাররাও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই খাঁচায় ঢুকছেন। খাঁচায় ঢোকার আগে তাদের শরীরের তাপমাত্রা থার্মাল স্ক্রিনিং করে তবেই ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে।

 

চিড়িয়াখানায় সিংহ জুটির নাম বিশ্বাস ও শ্রুতি।  রয়্যাল বেঙ্গলের নাম স্নেহাশিস ও পায়েল। পশু চিকিৎসকরা জীবজন্তুদের আচরণের ওপর কড়া নজর রাখছেন। ওদেরও দেহের তাপমাত্রা প্রতিনিয়ত পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে ভালই আছে ওরা। যদিও বাইরে থেকে দর্শনার্থীরা না আসায় তাদের মন কিছুটা খারাপ রয়েছে বিশ্বাস, শ্রুতি, স্নেহাশীষ, পায়েলদের।

জনপ্রিয়

Back To Top