আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আপাত দৃষ্টিতে দেখলে মনে হবে গুণ্ডামি করেছে কেউ। অমিত শাহর মিছিলে যাঁরা এসে জড়ো হলেন, তাঁরা যা করলেন বিদ্যাসাগর কলেজে, তা গুণ্ডামি নয় তো কি। এদিন কলেজে ঢুকে নির্বিচারে ভাঙচুর তো ছিলই, রেহাই পেল না বিদ্যাসাগরের মূর্তিও। অধ্যাপকের ল্যাপটপের ব্যাগ নিয়ে পালালো মিছিলে আগতরা।
এদিন রোড শো–য়ের শুরু থেকেই দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছিল রোড–শোকে কেন্দ্র করে। শুরুটা হয়েছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। যার আঁচ এসে পড়ল বিদ্যাসাগর কলেজে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট বন্ধ করে দেওয়ায় সে যাত্রায় কলেজের ভিতর ঢুকতে পারেনি বিজেপি সমর্থকরা। কিন্তু এরপর মিছিল আরও এগিয়ে যায়। আর এরপরই বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙচুর চালাতে শুরু করে বিজেপি কর্মীরা। ইট, বাঁশ নিয়ে কলেজ চত্বরে ঢুকে পড়ে বিজেপির সমর্থকরা। ভেঙে ফেলা হয় বাইরের গেট, রিসেপশনের কাঁচের দরজা, সেখানে রাখা চেয়ার–টেবিল। এখানেই শেষ নয়, দীর্ঘদিন ধরে কলেজ চত্বরে রাখা বিদ্যাসাগরের মূর্তিও ভেঙে ফেলেন বিজেপির উন্মত্ত সমর্থকরা। এছাড়া গেটের বাইরে থেকে লাগাতার ইট, পাটকেল ছোড়া হতে থাকে কলেজের ভিতরে। এরপর গেটের বাইরে রাখা বাইকগুলিও জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। সন্ধ্যে ৬ টা ৫০ থেকে ৭ টা ১০ পর্যন্ত চলে এই ভাঙচুরের ঘটনা। সেসময় কলেজের ভিতরে অনেক ছাত্র–ছাত্রীরাও ছিলেন। তাঁরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এই ঘটনায়।

জনপ্রিয়

Back To Top