আজকালের প্রতিবেদন: অভিযুক্ত শিক্ষকের ক্লাস না করার সিদ্ধান্তেই অনড় থাকলেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের পড়ুয়ারা। তদন্ত চলাকালীন ওই শিক্ষককে সাসপেন্ড করার দাবিও উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের একের পর এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন এবং মানসিক হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে। পড়ুয়াদের অভিযোগ, কর্তৃপক্ষকে জানানো সত্ত্বেও তাঁরা বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না। অভিযুক্ত শিক্ষকরা যথারীতি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসছেন। গোটা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতেই বৃহস্পতিবার পড়ুয়াদের সাধারণ সভা ডাকা হয়েছিল। সেখানেই ক্লাস বয়কট চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের পড়ুয়ারা। ওই বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকজন ছাত্রীকে মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গোটা বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটির (‌‌আইসিসি)‌‌ বিচারাধীন। শুধু এই বিভাগই নয়, দর্শন এবং ইংরেজি বিভাগের নির্দিষ্ট শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগও উঠেছে। যা নিয়ে এদিনের সভায় আলোচনা হয়। এ নিয়ে ছাত্র সংসদের সভানেত্রী মিমোসা ঘড়ুই বলেন, ‘‌রাষ্ট্রবিজ্ঞানের পড়ুয়ারা জানিয়েছেন ক্লাস বয়কট চললেও আইসিসি–‌র তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা অপেক্ষা করবেন। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া না হলে সংসদের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ করা হবে।’‌ খুব শিগগিরি সংসদের পক্ষ থেকে আইসিসিকে দ্রুত তদন্ত শেষ করার আবেদন জানানো হবে। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top