আজকালের প্রতিবেদন: বাংলায় বিনিয়োগ করতে শিল্পপতিদের আবেদন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বৃহস্পতিবার আইটিসি সোনার হোটেলে ‘‌ইনফোকম–‌২০১৯’ অনুষ্ঠানে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। শিল্প বিষয়ক দুদিনের ওই আলোচনা সভার উদ্বোধনও করেন মুখ্যমন্ত্রী। পরে তাঁর ভাষণে পশ্চিমবঙ্গের শিল্পায়ন ও তাকে ঘিরে দ্রুত অগ্রগতির প্রসঙ্গ উঠে আসে। মমতা বলেন, ‘‌সারা দেশে যে অনিশ্চয়তা, তার চেয়ে বাংলা এখন অনেক ভাল আছে। আমাদের রাজ্যে জমি ব্যাঙ্ক আছে। শিল্পের অনুকূল পরিবেশ রয়েছে। আপনারা শিল্প করুন। বিনিয়োগ করুন বাংলায়।’‌
কেন্দ্রে মোদি সরকারের তীব্র সমালোচনা করে মমতা এদিন রাজ্যের উন্নয়নে তুলনামূলক পরিসংখ্যানও তুলে ধরেন। মমতার মতে, কেন্দ্রে মোদি সরকারের ভুল আর্থিক নীতিতে মন্দার সৃষ্টি হয়েছে সারা দেশে। তাঁর কথায়, ‘‌উন্নতি থমকে রয়েছে। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বহু শিল্প কারখানা। অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অন্ধকার নেমে এসেছে। তবু বলব, এই পরিস্থিতিতে বাংলা ভাল রয়েছে।’‌ তার কারণ, মুখ্যমন্ত্রীর মতে গত কয়েক বছরে শিল্পের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিরাট সম্ভাবনার সৃষ্টি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। উদাহরণ দিয়ে তিনি জানিয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তি যেমন সম্ভাবনা বাড়িয়েছে, তেমনই পরিষেবামূলক শিল্পক্ষেত্র, পর্যটন, বিশেষত চা–‌শিল্পকে ঘিরে শিল্পায়নের দিক খুলে গিয়েছে। মমতা বলেছেন, ‘‌আমরা ৪০ শতাংশ বেকারত্ব কমিয়েছি। দক্ষ শ্রমিক কর্মচারী রয়েছে আমাদের রাজ্যে। এত খারাপ সময়ের মধ্যেও দারিদ্র দূর করেছি আমরা। ব্যাঙ্কের তথ্য বলছে, মাঝারি ও ছোট শিল্পের এক নম্বরে রয়েছে এখন বাংলা। ৯০ লক্ষ ইউনিট কাজ করছে এখানে। ১ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ যুক্ত রয়েছে এই শিল্পে।’‌
মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের জন্য ইতিমধ্যে রাজারহাটে ১০০ একর জমি দেওয়া হয়েছে। যার ১০০ শতাংশ শিল্পপতিরা বুক করে নিয়েছেন। ‘‌সিলিকন ভ্যালি’‌ ধাঁচের এই শিল্পতালুকে ইতিমধ্যে ৩ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগও হয়েছে। এদিকে চা–‌বাগানগুলিকে ঘিরে পর্যটন শিল্পেও নতুন সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। যাত্রীদের যাতায়াতের নিরিখে বাগডোগরা বিমানবন্দরও এক নম্বর হয়ে উঠেছে সারা দেশে। উল্লেখ্য, আগামী ১১ ও ১২ ডিসেম্বর শিল্প–‌বাণিজ্য সম্মেলন শুরু হতে চেলেছে দীঘায় কনভেনশন সেন্টারে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন সাকতাও মনে করিয়ে দিয়ে বলেছেন, ‘‌এসব দেখেই বোঝা যায় বাংলা ভালভাবে এগোচ্ছে। আমি ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখি। কৃষি ও শিল্প দুটোকেই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে আমাদের রাজ্যে। আমরা কখনওই চাই না ধর্মের ভিত্তিতে দেশকে ভাগ করা হোক। জয় হবেই। আসুন আমরা সবাই একজোট হয়ে এগিয়ে যাই।’‌ এদিনের অনুষ্ঠানে এদিন বক্তব্য পেশ করেন ইনফোকমের চেয়ারম্যান ডি ডি পুরকায়স্থ, স্টেট ব্যাঙ্কের এম ডি অরিজিৎ বসু–‌সহ অমিতাভ রায়, বি এস মিশ্র প্রমুখ।‌‌‌

ভরসা রাখুন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বৃহস্পতিবার, ইনফোকমের অনুষ্ঠানে। ছবি: কুমার রায়

জনপ্রিয়

Back To Top