অভিজিৎ বসাক- মিষ্টি অপেক্ষার অবসান!‌ নিউ টাউনের মিষ্টি হাবের উদ্বোধন ৫ জুলাই। হিডকোর চেয়ারম্যান দেবাশিস সেন জানান, উদ্বোধনে থাকবেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কলকাতা এবং রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বিখ্যাত সব মিষ্টি পাওয়া যাবে সেখানে। এবং পুরনো কলকাতার ছোঁয়া। হাব গড়ে তোলা হয়েছে সেই ভাবনাকে মাথায় রেখে। এই ভবন তৈরি করেছে হিডকো। তাদের আশা, হাব চালুর পর সেখানে অজস্র মানুষ আসবেন। তাই ওই অঞ্চলে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখা দরকার। নজরে রাখতে হবে যাতে যানজট না হয়। তাই এ ব্যাপারে পুলিসের সঙ্গে কথা বলেছে হিডকো।
আগ্রহপত্র ডাকা হয়েছিল। তবে নতুনের থেকে প্রাচীন সংস্থাকে প্রাধান্য দেওয়া হবে, এমনই শর্ত ছিল।
২৫ বছর বা তার বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন সংস্থা সেখানে জায়গা পেয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে নলিনচন্দ্র দাস, বলরাম মল্লিক এবং রাধারমণ মল্লিক, গাঙ্গুরাম সুইটস, বাঞ্ছারাম, কে সি দাস, হিন্দুস্থান সুইটস, গুপ্তা ব্রাদার্স। নবকৃষ্ণ গুঁইয়ের মতো নতুন কয়েকটি সংস্থাও আগ্রহ দেখিয়েছে। নামকরা মিষ্টির দোকানের পাশাপাশি থাকবে বাংলার বিভিন্ন জেলার বিখ্যাত সব মিষ্টি। সেই তালিকায় রয়েছে শক্তিগড়ের ল্যাংচা, বর্ধমানের সীতাভোগ ও মিহিদানা, বহরমপুরের ছানাবড়া, কৃষ্ণনগরের সরপুরিয়া, সরভাজার মতো মিষ্টি। 
ইকো পার্কের ৩ নম্বর গেটের কাছে তৈরি হয়েছে মিষ্টি হাব। নিউ টাউন হয়ে বিমানবন্দর যাওয়ার পথে বাঁদিকে। পর্যটকদের সুবিধের কথা ভেবেই এই জায়গায় ভবনটি তৈরি হয়েছে। যে সব পর্যটক কলকাতা ছেড়ে চলে যাচ্ছেন চট করে বাংলার টাটকা, সেরা কিছু মিষ্টি কিনে নিতে পারবেন। ‌গ্রাহকদের সুবিধের জন্য আছে নিখরচায় আধঘণ্টার জন্য সেখানে গাড়ি রাখার ব্যবস্থা। সেটুকু সময়ের মধ্যে খাওয়া এবং কেনার কাজ সারতে পারবেন। ব্র‌্যান্ডেড মিষ্টির কাউন্টারের সামনের অংশ সুদৃশ্য কাচঘেরা, মিষ্টি রাখার আলাদা জায়গা। প্রতিটি ব্র‌্যান্ডেড মিষ্টির কাউন্টারের জন্য থাকবে নিজস্ব ক্যাশ কাউন্টার, প্যাকিংয়ের ব্যবস্থা। তবে সেখান থেকে বেরোনোর সময় অবশ্য চেকিংয়ের বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে। এত মিষ্টি দেখে আর তর সইছে না!‌ চেখে দেখা দরকার এখনই। সেক্ষেত্রেও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। সেখানে রয়েছে লম্বা এক টেবিলে। একসঙ্গে বেশ কয়েকজন বসে মিষ্টি চেখে দেখতে পারবেন দিব্যি। বাধাহীনভাবে সূর্যের আলো আসার জন্য সেখানকার একাংশে থাকছে কাচের দেওয়াল। বাইরে কাস্ট আয়রনের কাজ পুরনো কলকাতায় ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। খোলা থাকবে মিষ্টি হাব অফিস। গ্রাহকদের সাহায্য করতে সর্বক্ষণ থাকবেন হিডকোর পক্ষে একজন কর্মী।‌‌

ইকো পার্কে শুরু হচ্ছে মিষ্টি হাব। চলছে প্রস্তুতি। ছবি: কুমার রায়

জনপ্রিয়

Back To Top