আজকালের প্রতিবেদন
দশ বছরের মেয়েটি নাকি সবসময়ই ভূতের ভয় পেত। বিশেষত দোতলার ঘরের জানলায় এসে দাঁড়ালে। শুক্রবার বিকেলে ঘরের ভেতর অচৈতন্য অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। দশ বছরের মেয়েটির নাম স্বর্ণলিপি ভট্টাচার্য। মৃত্যুর পর পরিবারের পক্ষ থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের এমনকি হাসপাতালেও ভূতের ভয়ের কথা বলা হয়েছিল। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃতদেহ দেখে সন্দেহ করেন। হাসপাতাল থেকেই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। ময়নাতদন্ত হয়েছে। প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী পুলিশের বক্তব্য, পরিবারের পক্ষ থেকে যা বলা হচ্ছে, তার সঙ্গে রিপোর্টে ফারাক রয়েছে।
নিউ আলিপুরের ই ব্লকের ঘটনা। মেয়েটির মা এবং তার এক পরিচিত ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। মেয়েটির বাবার সঙ্গেও যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে। স্থানীয় সূত্রে পুলিশ কিছু তথ্য সংগ্রহ করেছে। শুক্রবার বিকেলে মেয়েটিকে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে থাকা পুলিশকে পরিবারের পক্ষ থেকে নাকি বলা হয়েছিল, ভূতের ভয় তো পেতই, জানলার সামনে এসে দাঁড়ালে আরও বেশি ভয় পেত। নিউ আলিপুরে তিনতলা নিজস্ব বাড়ি স্বর্ণলিপিদের। মেয়েটি মাঝেমাঝেই মামাবাড়িতে থাকত। তার মায়ের পরিচিত এক বন্ধু মাঝেমাঝে ওই বাড়িতে আসত বলে পুলিশ জানতে পেরেছে। সব দিকই দেখা হচ্ছে। মেয়েটির গলায় একটি দাগ রয়েছে। এই দাগ নিয়েই রহস্য দানা বেঁধেছে। পুলিশের বক্তব্য, দু–একদিনের মধ্যেই মেয়েটির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। ভূতের ভয় সে পেত, এ কথা পরিবারের লোক বাদে আর কেউ জানত কি না, তা–ও দেখা হচ্ছে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top