তরুণ চক্রবর্তী
রবিবার নিট পরীক্ষার্থীদের পরিষেবা দেওয়ার বিষয়ে ভালভাবেই উতরে গেল মেট্রো। কলকাতা এবং রাজ্য পুলিশের সহযোগিতায় পরিষেবায় কোনও অসুবিধে হয়নি। তবে আসল পরীক্ষা আজ সোমবার থেকে।  রবিবার ভিড় কম হলেও সোমবার অফিস টাইমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়াটাই চ্যালেঞ্জ। যাত্রীদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে কোভিড বিধি সম্পর্কে।  ই–‌পাশ নিয়ে ইতিমধ্যেই সক্রিয় প্রতারণাচক্র। বিষয়টি নজরে আসতেই মেট্রোর তরফে সতর্ক করা হয়েছে। মেট্রো রেলের সিপিআরও ইন্দ্রাণী ব্যানার্জি জানিয়েছেন, যাত্রীরা নিজেরা সহজেই মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে ই–‌পাশ জোগাড় করতে পারবেন। এবিষয়ে কাউকে ফোন করার প্রশ্নই নেই। 
রবিবার সকাল ৯টা ৫৪ মিনিটে প্রথম বিশেষ মেট্রো ছাড়ল নোয়াপাড়া থেকে। নিট পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে দমদম ছাড়ে ঠিক সকাল ১০টায়। মুখে মাস্ক। অ্যাডমিট কার্ড দেখে স্টেশনে ঢুকতে দেয় কলকাতা পুলিশ। স্টেশনে ঢুকে থার্মাল চেকিং। স্মার্টকার্ড না থাকলে কাটতে হয়েছে টিকিট। স্যানিটাইজ করে গেট দিয়ে প্রবেশ। ভিড় ছিল না। দমদমে কর্মরত মেট্রো আধিকারিক এসপি সরকার জানান, প্রথম দিনের অভিজ্ঞতা খুব ভাল। সর্বত্রই এক কথা। অভিজ্ঞতা ভাল পরীক্ষার্থীদেরও।  মেট্রো পরিষেবা চালু হওয়ায় তাদের অনেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
আজ সোমবার থেকে পরিষেবা সবার জন্য। ভিড় এড়াতে ই–‌পাশ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। 

 

সফরের ১২ ঘণ্টা আগে রাজ্য সরকারের পথদিশা বা মেট্রোর অ্যাপ থেকে বুকিং করতে হবে স্লট। ভিড় থাকলে পছন্দের স্লটের ই–‌পাশ মিলবে না। আর ই–‌পাশ না থাকলে পুলিশ কাউকে স্টেশনে ঢুকতে দেবে না।  সকাল ৮টা থেকে দুটি রুটেই শুরু হবে মেট্রো পরিষেবা। শেষ ট্রেন ছাড়বে সন্ধ্যা ৭টায়। অফিস টাইমে প্রতি ১০ মিনিট অন্তর ট্রেন চলবে উত্তর–‌দক্ষিণে। তবে বেলার দিকে ব্যবধান হবে ১৫ মিনিটের। যাত্রীদের মাস্ক বাধ্যতামূলক। টোকেন চলবে না। স্মার্টকার্ড লাগছেই। স্মার্টকার্ড মিলবে মেট্রো কাউন্টারে। রিচার্জ করা যাবে অনলাইনে। টিকিট কাউন্টার, প্ল্যাটফর্ম, মেট্রোর প্রতিটি কোচেই যাত্রীদের বসার ও দাঁড়ানোর জায়গা নির্ধারিত হয়েছে। প্রতি বগিতে ৫০ জন করে যাত্রী উঠতে পারবেন। স্টপেজ ২০ সেকেন্ড থেকে বাড়িয়ে ৩০ সেকেন্ড করা হয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top