‌দীপঙ্কর নন্দী
আমফানে ক্ষতিগ্রস্থরা সবাই ত্রাণ পাবেন। ত্রাণ নিয়ে যেন স্বচ্ছতা থাকে।
মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বুধবার সর্বদলীয় বৈঠক করার পর সাংবাদিকদের একথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘‌সরকারের কড়া নির্দেশ যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হননি তাঁরা আবেদন করবেন না। কোনও বঞ্চনা সরকার সহ্য করবে না।  বৈঠকে কেউ কেউ ত্রাণ নিয়ে অভিযোগ করেছেন। বঞ্চিত হয়েছেন এমন ২ হাজার ১০০ জনের অভিযোগ এসেছে। সেগুলো সব খতিয়ে দেখা হবে। যাঁদের প্রকৃত ক্ষতি হয়েছে, তাঁরা যেন পাওনা থেকে বঞ্চিত না হন। ৭ দিন সময় দেওয়া হল। যাঁরা বাদ গেছেন তাঁরা নাম তুলুন। এঁদের তালিকা তৈরি হবে। মুখ্যসচিব জেলাশাসক ও বিডিও দের এ ব্যাপারে বিশেষ ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। তাঁদের বলা হয়েছে, অনেক ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে বাদ দেওয়া হচ্ছে। আপনারা বিষয়টি ভালভাবে দেখুন।’‌
মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‌সরকার তো ত্রাণ দেওয়ার বিষয়ে কোনও কার্পন্য করেনি। আমফানের ত্রাণ, সুন্দরবনের উন্নয়ন ও পরিযায়ী শ্রমিকদের বিষয়টি দেখার জন্য সর্বদলীয় বৈঠকে একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটির কাছে এই বিষয়গুলি নিয়ে প্রস্তাব আসবে। কোনওটি দিল্লি পাঠানো হবে কোনও টি রাজ্য সরকারের কাছে থাকবে।’‌ তিনি বলেন, ‘‌আমার হাতে ক্ষমতা আছে বলে আমি যা খুশি করব তা কিন্তু হবে না। ত্রাণ সমাজসেবার মধ্যে পড়ে। কেউ এখানে কেউকেটা নয়। অন্যায় করার অধিকার কারোর নেই। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত যাঁরা লেখালেখি করতে পারেন না, তাঁরা নিজেদের মোবাইলে ছবি তুলে, নাম ঠিকানা পাঠিয়ে দিন বিডিওর কাছে। ত্রাণ নিয়ে বঞ্চনা বরদাস্ত করবো না। আপানার দেখেছেন ইতিমধ্যে ২ জনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’‌
 উত্তেজনা ছড়িয়ে যাঁরা বিডিও অফিসে ভাঙচূর করছেন তাঁদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌আপনারা এসব করবেন না। বিচারের জায়গা আছে। পঞ্চায়েতগুলিকে আরও নজর রাখতে হবে। সঠিকভাবে যাতে ত্রাণ বিলি করা হয়, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’‌ তিনি বলেন, ‘‌সুন্দরবন ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত। ঝড়ে বাড়ি ঘর ভেঙে পড়ে। আমরা সব করে দিই। সর্বদলীয় বৈঠকে অনেকেই বলেছেন সমস্যার স্থায়ী সমাধান দরকার। ঠিক হয়েছে, স্থায়ী সমাধানের জন্য নীতি আয়োগকে চিঠি দেওয়া হবে। তাঁদের বলা হবে , আপনারা টিম পাঠিয়ে সুন্দরবনের অবস্থা দেখে যান। অনুরোধ করবো, সুন্দরবনের জন্য মাস্টার প্ল্যান করা হোক। এটা খুবই দরকার।’‌
কেন্দ্রের গরীব কল্যাণ যোজনা অভিযানের আওতা থেকে বাংলাকে বাদ দিয়ে দেওয়া হল। এসব নিয়েও তৈরি করা কমিটিতে প্রস্তাব আসবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠকে তৈরি এই কমিটিতে রয়েছেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, দিলীপ ঘোষ, সুজন চক্রবর্তী, প্রদীপ ভট্টাচার্য, স্বপন ব্যানার্জি প্রমুখ। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‌গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে আলোচনা হয়েছে। ভাল মিটিং হয়েছে। প্রত্যেকেই নানা ধরনের প্রস্তাব দিয়েছেন। আমফানে ক্ষতিপূরণের জন্য আরও টাকা প্রয়োজন।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top